বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > BJP MP Opened Emergency gate of Indigo flight: 'বিজেপির VIP', বিমানের ইমারজেন্সি গেট খুলেছিলেন তেজস্বী সূর্য?

BJP MP Opened Emergency gate of Indigo flight: 'বিজেপির VIP', বিমানের ইমারজেন্সি গেট খুলেছিলেন তেজস্বী সূর্য?

বিজেপি সাংসদ তেজস্বী সূর্য (HT_PRINT)

গত ১০ ডিসেম্বর চেন্নাই বিমানবন্দর থেকে তিরুচিরাপল্লিগামী একটি বিমানে ওঠার পরই এক যাত্রী বিমানের ইমারজেন্সি দরজা খুলে দিয়েছিলেন। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়। 

গত ডিসেম্বরে চেন্নাই থেকে তিরুচিরাপল্লিগামী ইন্ডিগোর বিমানে এক যাত্রী ইমারজেন্সি দরজা খুলে দিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছিল গতকাল। ঘটনাটি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে ডিজিসিএ। এই ঘটনা নিয়েই এবার চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। এক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বিমানের ইমারজেন্সি দরজা খুলেছিলেন দক্ষিণ বেঙ্গালুরুর সাংসদ তথা বিজেপি যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। যা নিয়ে এবার কংগ্রেসের তরফে তোপ দাগা হয়েছে শাসকদল বিজেপির বিরুদ্ধে। অপরদিকে বিজেপি এই নিয়ে চুপচাপ থাকছে। কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সূরযেওয়ালার দাবি, বিমানযাত্রীদের বিপদে ফেলে এই কাণ্ড ঘটান তেজস্বী। যদিও এই অভিযোগ নিয়ে মুখ খোলেননি তেজস্বী নিজে। না তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেছেন, না স্বীকার করেছেন। যার জেরে জল্পনা আরও বেড়েছে। (আরও পড়ুন: 'কী লুকোচ্ছেন মোদী?' মন্দা নিয়ে BJP মন্ত্রীর বিস্ফোরক দাবি ঘিরে উঠল প্রশ্ন)

গতকালই জানা যায়, গত ১০ ডিসেম্বর চেন্নাই বিমানবন্দর থেকে তিরুচিরাপল্লিগামী একটি বিমানে ওঠার পরই এক যাত্রী বিমানের ইমারজেন্সি দরজা খুলে দিয়েছিলেন। ইন্ডিগোর ‘৬ই ৭৩৩৯’ বিমানটির ইমারজেন্সি গেট খুলে যাওয়ার পর সব যাত্রীদের ফের নামিয়ে দেওয়া হয় বিমান থেকে। পরে বিমানেপ ‘প্রেসার’ চেক করে সেটি গন্তব্যের উদ্দেশে উড়ে যায়। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়। উল্লেখ্য, এয়ার ইন্ডিয়ায় প্রস্রাব কাণ্ডের পর থেকেই বিমানে যাত্রীদের অভব্য আচরণ নিয়ে পরপর রিপোর্ট প্রকাশ হচ্ছে। এরই মাঝে গতকাল বিকেলে এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সূরযেওয়ালা টুইট করে লেখেন, 'বিজেপির ভিআইপি বাচ্চা! বিমান সংস্থার সাহস কীভাবে হল এই নিয়ে অভিযোগ করার? বিজেপির জন্য এই নিয়ম তো খাটে না! এতে কি যাত্রীদের নিরাপত্তায় ব্যাঘাত হল না? ওহ, আপনি বিজেপির ভিআইপিদের কোনও প্রশ্ন করতে পারবেন না!'

এদিকে এই ঘটনা প্রসঙ্গে তামিলনাড়ুর শাসকদল ডিএমকের মুখপাত্র দাবি করেন, উক্ত বিমানে ছিলেন তামিলনাড়ুর রাজ্য সভাপতি আন্নামালাই এবং কর্ণাটকের এক সাংসদ। ডিএমকের তরফে দাবি করা হয়, এই ঘটনার পর দুই বিজেপি নেতাকেই বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়া হয় এবং আধঘণ্টারও বেশি সময় বাসে বসিয়ে রাখা হয়। অপর এক ডিএমকে নেতা হাফিজের দাবি, তাঁর এক বন্ধু সেই বিমানে ছিলেন। হাফিজ নিজের বন্ধুকে উদ্ধৃত করে দাবি করেন, তেজস্বী সূর্যের হাত ছিল ইমারজেন্সি দরজার ওপর। দরজাটা খুলে যেতেই অন্য যাত্রীদের বিমান থেকে নামিয়ে বাসে তুলে দেওয়া হয়। পরে নাকি তেজস্বী এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়ে বিমান সংস্থা এবং সেই উড়ানে থাকা বাকি যাত্রীদেরকে চিঠি পাঠান।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন