প্রতীকি ছবি (Getty Images/iStockphoto)
প্রতীকি ছবি (Getty Images/iStockphoto)

প্রাক্তন প্রেমিককে দেখে বিয়ের মন্ডপ ছাড়লেন কনে!

  • অগ্নিদেবকে সাক্ষী রেখে চলছিল মন্ত্র উচ্চারণ পর্ব। পুরোহিতের নির্দেশ মেনে পাত্র মঙ্গলসূত্র পরিয়ে দিতে যাচ্ছিলেন হবু স্ত্রীর গলায়। কিন্তু সেইসময়ই পাত্রের হাত সরিয়ে উঠে দাঁড়ান কনে। জোর গলায় ঘোষণা করেন- 'আমি এই বিয়ে করতে পারব না'!

আলোর রোশানাইতে সেজে উঠেছে বিয়ের মন্ডপ তৈরি। বর-কনে তৈরি। চলছে বিয়ের পবিত্র মন্ত্র উচ্চারণ। হঠাত্ই মাঝপথে তাল কাটল। কনের গলায় মঙ্গলসূত্র পড়ানোর জন্য রেডি বর। তবে হঠাত্ই কনে বলে উঠল, এই বিয়ে হতে পারে না!

হিন্দি ফিল্ম বা টেলিভিশন ধারাবাহিকে হামেশাই আপনি এই দৃশ্য দেখে থাকেন, তবে বাস্তবে এমন নাটকীয় ঘটনা ঘটল তেলেঙ্গানায়। রাজ্যের বরপর্তি জেলার চার্লাপল্লিতে সম্প্রতি সেই বিয়ের আসর বসেছিল। অগ্নিদেবকে সাক্ষী রেখে চলছিল মন্ত্র উচ্চারণ পর্ব। পুরোহিতের নির্দেশ মেনে পাত্র মঙ্গলসূত্র পরিয়ে দিতে যাচ্ছিলেন হবু স্ত্রীর গলায়। কিন্তু সেইসময়ই পাত্রের হাত সরিয়ে উঠে দাঁড়ান কনে। এবং জোর গলায় ঘোষণা করেন এই বিয়ে তিনি করতে পারবেন না।

প্রথমে সবাই চমকে গিয়েছিল। হঠাৎ হলটা কী! কনের বাবা-মা তো রীতিমতো ভিরমি খেয়ে যান। তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করে বাড়ির লোকজন। তবে নিজের সিদ্ধান্তে অটল সে। শেষমেষ বিয়ের আসর ছেড়েই বেরিয়ে যায় সে। বিয়ের মন্ডপে উপস্থিত এক আত্মীয়র দাবি. এই বিয়েতে কনের প্রাক্তন প্রেমিকও আমন্ত্রিত ছিলেন। প্রাক্তনকে দেখামাত্রই নাকি বিয়ে থেকে বেঁকে বসেন পাত্রী। এরপর সেই প্রেমকিকে ধরার চেষ্টা করেন পাত্রপক্ষের লোকজন। তবে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সেই প্রেমিক।বিয়ের আসরে অদ্ভূত ঘটনা এই প্রথম নয়, মাস খানেক আগেই সুরাতে এক যুবকের হবু শাশুড়িকে নিয়ে উধাও হয়ে যান তাঁর বাবা। হবু বর-কনের বাবা-মা নাকি ছেলেবেলার সঙ্গী ছিলেন। বাড়ির মত না থাকায় দুজনেই অন্যত্র বিয়ে করতে বাধ্য হয়েছিলেন। এই ঘটনা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বন্ধ করুন