বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হায়দরাবাদ এনকাউন্টার : ৪ অভিযুক্তের শেষকৃত্যে স্থগিতাদেশ তেলাঙ্গানা হাইকোর্টের
পড়ে রয়েছে একট অভিযুক্তদের মৃতদেহ (ছবি সৌজন্য এএনআই)
পড়ে রয়েছে একট অভিযুক্তদের মৃতদেহ (ছবি সৌজন্য এএনআই)

হায়দরাবাদ এনকাউন্টার : ৪ অভিযুক্তের শেষকৃত্যে স্থগিতাদেশ তেলাঙ্গানা হাইকোর্টের

মৃতদের পোস্টমর্টেমের ভিডিয়ো করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। সোমবার ফের জনস্বার্থ মামলাটির শুনানি হবে।

আগামী সোমবার রাত আটটা পর্যন্ত পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত চার অভিযুক্তের শেষকৃত্য করা যাবে না। এনকাউন্টারের আইনি বৈধতা নিয়ে দায়ের হওয়া একটি জনস্বার্থ মামলায় এই নির্দেশ দিল তেলাঙ্গানা হাইকোর্ট।

আগামী সোমবার রাত আটটা পর্যন্ত পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত চার অভিযুক্তের শেষকৃত্য করা যাবে না। এনকাউন্টারের আইনি বৈধতা নিয়ে দায়ের হওয়া একটি জনস্বার্থ মামলায় এই নির্দেশ দিল তেলাঙ্গানা হাইকোর্ট।

গত ২৮ নভেম্বর শামশাবাদের আউটার রিং রোডের আন্ডারপাসের ওই তরুণীর দগ্ধ দেহ উদ্ধার করা গিয়েছিল। তদন্তে জানা যায়,আগের রাতে শামশাবাদ টোল প্লাজার কাছে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে খুন করে ওই চার অভিযুক্ত। পরে ওই ব্রিজের কাছে তাঁর দেহে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনার ৩৬ ঘণ্টা পর চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরইমধ্যে গতকাল ভোরে পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় অভিযুক্ত চারজনের। পুলিশ দাবি করে, ঘটনার পুনর্নির্মাণ করতে তাদের ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেই সময় অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে তারা। পুলিশ অভিযুক্তদের আত্মসমর্পণ করতে বলে। পালটা গুলি চালালে মৃত্যু হয় অভিযুক্তদের।

যদিও পুলিশের দাবির 'সত্যতা' নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। সুপ্রিম কোর্টের তৈরি করা নিয়মের লঙ্ঘন করে এনকাউন্টার করার অভিযোগে তেলাঙ্গানা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। পিটিশনে সই করেন ১৫ জন মহিলা ও কয়েকজন মানবাধিকার কর্মী।

সেই মামলার শুনানিতে হাইকোর্ট নির্দেশ দেয়, মৃতদের পোস্টমর্টেমের ভিডিয়ো করতে হবে। তা শনিবার সন্ধ্যার মধ্যে আদালতে জমা দিতে হবে। পাশাপাশি, সোমবার রাত আটটা পর্যন্ত অভিযুক্তদের দেহ সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। সেদিনই বিস্তারিতভাবে মামলাটি শুনবে আদালত।


বন্ধ করুন