বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভিখারিকে বিমা করিয়ে পিটিয়ে খুন, সুপারি কিলার ছিল পুলিশ, জানা গেল কীভাবে?

ভিখারিকে বিমা করিয়ে পিটিয়ে খুন, সুপারি কিলার ছিল পুলিশ, জানা গেল কীভাবে?

প্রতারণাচক্রকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সংগৃহীত ছবি

২২ ডিসেম্বর ২০২১ সালে ওই ভিখারিকে একটি গাড়িতে তুলে ফেলা হয়। প্রচুর মদ খাওয়ানো হয়। এরপর হকি স্টিক দিয়ে চলে বেধড়ক মার। একসময় মারা যান ওই ব্যক্তি। তারপর তার দেহ রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। ওপর দিয়ে কয়েকবার গাড়িও চালিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভয়াবহ ঘটনা তেলেঙ্গানায়। এক অনাথ ভিখারীকে বিমা করিয়ে তাকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে এক প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে। বিমার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্যই এই খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। গত ডিসেম্বর মাসে এই ঘটনা হয়েছে বলে অভিযোগ। ইতিমধ্যেই চারজনকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে। তার মধ্যে একজন কনস্টেবলও রয়েছেন।

এই চক্রের মূল পান্ডা হল বোরা শ্রীকান্ত নামে এক ব্যক্তি। অপর তিনজনের মধ্য়ে একজন হল হেড কনস্টেবল মোতিলাল, অন্য দুজন সতীশ ও সামান্না।

পুলিশ সূত্রে খবর, বোরা দীর্ঘদিন ধরেই প্রতারণাচক্রের সঙ্গে যুক্ত। গত ডিসেম্বর মাসে সে এই ষড়যন্ত্র করেছিল বলে অভিযোগ। প্রথমে ওই অনাথ ভিখারির নামে একটি বিমা করানো হয়। এরপর সেই বিমার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য় তাকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রথমে ৫০ লাখ টাকার বিমা করানো হয়। এরপর বোরা হেডকনস্টেবল মোতিলাল, সতীশ আর সামান্নাকে খুনের জন্য সুপারি দেয়।

এরপর ২২ ডিসেম্বর ২০২১ সালে ওই ভিখারিকে একটি গাড়িতে তুলে ফেলা হয়। প্রচুর মদ খাওয়ানো হয়। এরপর হকি স্টিক দিয়ে চলে বেধড়ক মার। একসময় মারা যান ওই ব্যক্তি। তারপর তার দেহ রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। ওপর দিয়ে কয়েকবার গাড়িও চালিয়ে দেওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এটা প্রমাণ করার জন্য় দেহটির উপর কয়েকবার গাড়ি চালিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তবে দেহটি উদ্ধার করার পরেই সন্দেহ হয় পুলিশের। পোস্ট মর্টেম রিপোর্ট অনুসারেও দেখা যায় দুর্ঘটনার আগে মারধর করা হয়েছিল ওই ব্যক্তিকে।

ইতিমধ্যেই ওই ভিখারির বিমার অর্থ দাবি করে বিমা কোম্পানিতে যায় মূল অভিযুক্ত। তিনি জানান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ওই ভিখারির । এরপর বিষয়টি যাচাই করার জন্য পুলিশের দ্বারস্থ হয় বিমা কোম্পানি। কিন্তু সেটা তারা অভিযুক্তদের জানায়নি।

এদিকে তদন্তে দেখা যায়, বিমার দাবিদাররা কোনওভাবেই ওই ভিখারির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়। এরপরই বোরাকে জেরা করে পুলিশ জানতে পারে, সে এই ষড়যন্ত্রের মূল চক্রী। এরপরই পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করে। বোরা এর আগে ক্রেডিট কার্ড সংক্রান্ত কারচুপি করেছিল। হায়দরাবাদে তার বিরুদ্ধে আগে থেকেই অভিযোগ রয়েছে। এবার একেবারে ভিখারিকে খুন করে বিমার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ। কিন্তু শেষরক্ষা হল না।

 

বন্ধ করুন