বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মাসে ২,০০০ টাকা, বিনামূল্যে ২৫ কেজি চাল - বেসরকারি শিক্ষকদের দেবে এই রাজ্য
মাসে ২,০০০ টাকা, বিনামূল্যে ২৫ কেজি চাল - বেসরকারি শিক্ষকদের দেবে তেলাঙ্গানা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
মাসে ২,০০০ টাকা, বিনামূল্যে ২৫ কেজি চাল - বেসরকারি শিক্ষকদের দেবে তেলাঙ্গানা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

মাসে ২,০০০ টাকা, বিনামূল্যে ২৫ কেজি চাল - বেসরকারি শিক্ষকদের দেবে এই রাজ্য

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আবহে এবার তেলাঙ্গানার সব বেসরকারি স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের আর্থিক সাহায্য ও বিনামূল্যে চাল দেবে সরকার। সম্প্রতি তেলাঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছেন। যদিও রাও সরকারের এই সিদ্ধান্তকে নির্বাচনী গিমিক হিসেবেই দেখছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের বক্তব্য, সামনেই রাজ্যে উপনির্বাচন রয়েছে। সেই কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

তেলাঙ্গানা সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে রাজ্যের সব স্বীকৃত বেসরকারি স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের প্রতি মাসে ২,০০০ টাকা করে আর্থিক অনুদান দেওয়া হবে। সেইসঙ্গে বিনামূল্যে ২৫ কেজি চালও দেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রীর দফতরের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, বেসরকারি স্কুলগুলিতে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী রয়েছেন। করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার কারণে প্রবল সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের। তাই তাঁদের যাতে কিছুটা সুরাহা হয়, সেই কারণেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে ফের স্কুল বন্ধ করতে হয়। মুখ্যমন্ত্রীর দফতরের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, যতদিন না পর্যন্ত ফের স্কুল খুলছে, ততদিন পর্যন্ত এই সব শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের এই সরকারি সাহায্য দেওয়া হবে।

শুক্রবার তেলাঙ্গানার স্কুল শিক্ষামন্ত্রী সবিতা ইন্দ্র রেড্ডি এই বিষয়ে ভিডিয়ো কনফারেন্স করেন। তিনি জানান, কারা কারা এই ধরনের সুবিধা পেতে পারেন, তা আগামী ১০ থেকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে চিহ্নিত করা হবে। ১৬ থেকে ১৯ এপ্রিলের মধ্যে সব তথ্য যাচাই করা হবে।এরপর ২০ থেকে ২৪ এপ্রিলের মধ্যে প্রত্যেকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে যাবে। সরকারের এই সিদ্ধান্তকে ইতিমধ্যে স্বাগত জানিয়েছে তেলাঙ্গানার স্কুল ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।সংস্থার প্রেসিডেন্ট ওয়াই শেখর রাও জানান, লকডাউনে স্কুল বন্ধ থাকার সময়ে এমন অনেকদিন গিয়েছে, যখন শিক্ষকদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কেনার মতো ক্ষমতা ছিল না।সরকারের এই অনুদান কিছুটা হলেও তাদের সাহায্য করবে।তবে সরকার যদি এই আর্থিক সাহায্যের পরিমাণ ৫,০০০ টাকা করে তাহলে খুব সুবিধা হয়।

তবে এই ধরনের সিদ্ধান্তকে নির্বাচনী চমক হিসেবেই দেখছে কংগ্রেস। কংগ্রেস মুখপাত্র দাসোজু শ্রাবন জানান, গত এক বছরে ১০ জন শিক্ষক আত্মহত্যা করেছেন। কলেজের লেকচারাররা ঠিকমতো মাইনে পাচ্ছেন না। কী করেছে সরকার?‌ এই সব সিদ্ধান্ত আই ওয়াশ ছাড়া আর কিছুই নয়।

বন্ধ করুন