বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আগামী বছরই ভারতে আসছে টেসলা, টুইটে জানালেন ইলোন মাস্ক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

আগামী বছরই ভারতে আসছে টেসলা, টুইটে জানালেন ইলোন মাস্ক

  • টুইটারে তাঁকে এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেছিলেন, ‘ভারতে কবে আসছেন মশাই?’ জবাবে মাস্ক লিখেছেন, ‘পরের বছরই, পাক্কা’।

বেশ কিছুদিন ধরেই চলছিল জল্পনা। বিশ্বের অন্যতম সেরা বৈদ্যুতিন গাড়ি নির্মাতা টেসলা মোটরস কবে আসবে ভারতে। অবশেষে মিলল সেই সুখবর। আর সেখবর নিজে দিলেন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ইলোন মাস্ক। জানালেন, আগামী বছরই ভারতের বাজারে পা রাখতে চলেছে বিশ্ববিখ্যাত এই মোটরগাড়ি নির্মাতা সংস্থা। 

বৈদ্যুতিন গাড়িতে উদ্ভাবনী শক্তি প্রয়োগ করে গোটা বিশ্বে তাক লাগিয়ে দিয়েছে টেসলা। যা বদলে দিয়েছে গাড়ি ব্যবহারের ভবিষ্যৎ। ব্যবহারিক দিকের সঙ্গে আপোস না করে কী করে গাড়ি তৈরি করতে হয় তা গোটা বিশ্বকে দেখিয়েছে তারা। এহেন সংস্থার গাড়ির মালিক হওয়ার জন্য তাকিয়ে দেশের বহু তরুণ। তাদের জন্য খুশির খবর দিলেন ইলোন মাস্ক। 

সম্প্রতি এক টুইটের জবাবে টেসলার প্রতিষ্ঠাতা জানিয়েছেন ২০২১ সালে ভারতে পা রাখবে টেসলা। টুইটারে তাঁকে এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেছিলেন, ‘ভারতে কবে আসছেন মশাই?’ জবাবে মাস্ক লিখেছেন, ‘পরের বছরই, পাক্কা’। ‘ইন্ডিয়া ওয়ান্টস টেসলা’ লেখা একটি টি শার্টের ছবিও সঙ্গে পোস্ট করেন তিনি। 

গত বছর থেকেই ভারতের অটোমোবাইল ক্ষেত্রের অবস্থা ভাল নয়। তার ওপর করোনাভাইরাস সংক্রমণ যেন মড়ার ওপর খাড়ার ঘায়ের মতো এসে পড়েছে। পরিস্থিতি এতই জটিল যে ভারত সরকারের কাছে আর্থিক প্যাকেজ দাবি করেছে মোটরগাড়ি তৈরির কোম্পানিগুলি। আশঙ্কা বাড়িয়ে গত সপ্তাহেই ভারত থেকে বিদায় নেওয়ার কথা জানিয়েছে কিংবদন্তী মার্কিন মোটরসাইকেল নির্মাতা হার্লে ডেভিডসন। তার মধ্যে ইলোন মাস্কের টুইট মোটরগাড়ি ক্ষেত্রের জন্য এক টুকরো খুশির হাওয়া। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারতের বাজারে মোটরগাড়ির চাহিদা কমার পিছনে একাধিক কারণ রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম হল ভারতে নতুন দূষণবিধি লাগুর নির্ঘণ্ট। গত ১ এপ্রিল থেকে দেশে লাগু হয়েছে নতুন দূষণবিধি ‘ভারত স্টেজ সিক্স’। যার ফলে বদলে গিয়েছে সমস্ত গাড়ির ইঞ্জিন। পুরনো ‘ভারত স্টেজ ফোর’ ইঞ্জিন চালিত নতুন গাড়ি বর্তমানে বিক্রি করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। সেজন্য বেশ কিছুদিন ধরে ধুঁকছে গাড়িশিল্প।

তবে টেসলার তৈরি গাড়ি সম্পূর্ণ বিদ্যুৎচালিত। যার ফলে তার ওপর দূষণবিধি কার্যকর হয় না। উলটে ভারতে বৈদ্যুতিন গাড়ির ব্যবহারকে উৎসাহ দিতে বিভিন্ন ছাড় দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। তৈরি করছে পরিকাঠামো। যা টেসলাকে জমি তৈরি করতে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। 

 

বন্ধ করুন