বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ৫৪ বছর পর, মে মাসে শীত পড়ল বেঙ্গালুরুতে, সোয়েটার পরলেন বাসিন্দারা, কেন জানেন?
মে মাসে আচমকাই নেমে গেল পারদ বেঙ্গালুরুতে. (PTI) (HT_PRINT)

৫৪ বছর পর, মে মাসে শীত পড়ল বেঙ্গালুরুতে, সোয়েটার পরলেন বাসিন্দারা, কেন জানেন?

  • আবহাওয়া দফতরের মতে এদিন বেঙ্গালুরুতে দিনের বেলা তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে ১১ ডিগ্রি কম ছিল। ১৯৭২ সালের ১৪ মে একবার এরকম ঠান্ডা পড়েছিল বেঙ্গালুরুতে। সেবার মে মাসে তাপমাত্রা চলে গিয়েছিল ২২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

অরুণ দেব

একেবারে অবাক কাণ্ড। গত ৫৪ বছরের মধ্যে শীতলতম গ্রীষ্মকালের দিন দেখল বেঙ্গালুরু। এমনকী হিমাচলের সিমলা, জম্মুর পহেলগাঁও, উত্তরাখন্ডের নৈনিতালও এদিন গরম ছিল বেঙ্গালুরুর চেয়ে। বিশ্বাস হচ্ছে না? পরিস্থিতি এমন জায়গায় যায় যে বাসিন্দারা এই গরমকালেও গায়ে সোয়েটার চাপিয়ে ফেলেন। এদিন বেঙ্গালুরুতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সিমলায় এদিন ছিল ২৬.৬ ডিগ্রি, পহেলগাঁওতে ২৪.৩ ডিগ্রি, নৈনিতালে ২৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে আবহাওয়া দফতরের মতে এদিন বেঙ্গালুরুতে দিনের বেলা তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে ১১ ডিগ্রি কম ছিল। ১৯৭২ সালের ১৪ মে একবার এরকম ঠান্ডা পড়েছিল বেঙ্গালুরুতে। সেবার মে মাসে তাপমাত্রা চলে গিয়েছিল ২২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

কিন্তু কেন এমন হল? আবহাওয়াবিদদের মতে, এটা আসলে অশনির প্রভাব। এর জেরে অন্ধ্র ও তামিলনাড়ুর উপকূলে প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। গত ৫৪ বছরে এমন তাপমাত্রা আগে দেখা যায়নি। জানিয়েছেন আইএমডি বেঙ্গালুরুর ডিরেক্টর গীতা অগ্নিহোত্রী। তিনি বলেন, আসলে ঘন মেঘ গোটা কর্ণাটককে ছেয়ে ফেলেছিল। পাশের রাজ্য়েও মেঘে ঢেকে যায়। এরপর প্রবল বৃষ্টিতে আচমকা তাপমাত্রা নেমে যায়।

বাসিন্দাদের মতে, ৯০এর দশকেও এমন তাপমাত্রা নেমে যাওয়ার ঘটনা হয়নি। তবে আর যদি গরম না পড়ে তবে এটাই হবে সবথেকে সংক্ষিপ্ত গরমকাল।

 

বন্ধ করুন