বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হোম আইসোলেশনে অক্সিজেনের মাত্রা কমলে কী করবেন? বিশেষ পরামর্শ কেন্দ্রের
 ফাইল ছবি : পিটিআই 
 ফাইল ছবি : পিটিআই 

হোম আইসোলেশনে অক্সিজেনের মাত্রা কমলে কী করবেন? বিশেষ পরামর্শ কেন্দ্রের

  • অক্সিজেনের মাত্রা ৯৪-এর নিচে নামলেই প্রোনিং করার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্র।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক বলেছে, যেই কোভিড রোগীদের চিকিত্সা বাড়িতে করা হচ্ছে, তাদের শ্বাসকষ্টের অসুবিধা হলে তারা বিশেষ ব্যায়াম করতে পারেন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, শ্বাসকষ্ট হলে তারা মুখ নিচের দিকে করে শুয়ে থাকতে পারে। এই বিশেষ ভঙ্গিটিকে প্রোনিং বলা হয়। অক্সিজেনের মাত্রা ৯৪-এর নিচে নামলেই প্রোনিং করার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্র। চিকিত্সকদের মতে, প্রোনিং শ্বাস নেওয়া এবং শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে।

নির্দেশাবলী অনুযায়ী, শুরুতে ৩০ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা উবুর হয়ে শুতে হবে৷ এরপরের ৩০ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা বাঁ দিকে কাত হয়ে শুতে হবে৷ এরপর ডান দিকে কাত হয়ে শুতে হবে ৩০ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা৷ তবে গর্ভবতী, গভীর শিরাযুক্ত থ্রোম্বোসিসে আক্রান্ত, হৃদরোগে আক্রান্ত এবং যাদের মেরুদণ্ড, ফেমুর বা পেলভিকে ফ্র্যাকচার রয়েছে, সেরম করোনা রোগীদের প্রোনিং করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। তাছাড়া নির্দেশিকায় বলা হয়, খাওয়ার পর এক ঘণ্টা প্রোনিং করা উচিত না। এই বিষয়ে ছবি ও লেখা সহ নির্দেশাবলী টুইট করা হয়েছে ভারত সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে৷

উল্লেখ্য, অক্সিজেনের ঘাটতির জেরে নাজেহাল কেন্দ্র এবং বিভিন্ন রাজ্য সরকার। এই আবহে এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে অক্সিজেন সরবরাহের ক্ষেত্রে সব বিধিনিষেধ তুলে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। পাশাপাশি শিল্প কারখানাগুলিতে অক্সিজেন ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অক্সিজেনের ঘাটতি প্রসঙ্গে দিল্লি সরকার একটি অভিযোগ করে বলেছিল, দিল্লিতে অক্সিজেন পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশ সরকার। এরপর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কোনও রাজ্যের প্রয়োজনে অন্য় রাজ্য থেকে অক্সিজেন পাঠানো যাবে।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, অক্সিজেন উৎপাদনকারী সংস্থাগুলির উপর এবং অক্সিজেন সরবরাহকারী সংস্থাগুলির উপর সেই রাজ্যের বা অন্য রাজ্যের কোনও হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহের উপর কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা যাবে না। পাশাপাশি সরকার পরিচালিত সংস্থা ছাড়া অন্য় সব কারখানায় ২২ এপ্রিল ২০২১ থেকে অক্সিজেন সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

 

বন্ধ করুন