বাড়ি > ঘরে বাইরে > টেলিকম সংস্থার বকেয়া ১.৬ লাখ কোটি টাকা ঋণ শোধ নিয়ে অজুহাত শুনল না সুপ্রিম কোর্ট
‘এক সেকেন্ডের জন্যও’ এই বিষয়ে কোনও যুক্তি শুনতে রাজি হল না শীর্ষ আদালত।
‘এক সেকেন্ডের জন্যও’ এই বিষয়ে কোনও যুক্তি শুনতে রাজি হল না শীর্ষ আদালত।

টেলিকম সংস্থার বকেয়া ১.৬ লাখ কোটি টাকা ঋণ শোধ নিয়ে অজুহাত শুনল না সুপ্রিম কোর্ট

  • ১.৬ লাখ কোটি টাকার ওই বকেয়া ঋণ শোধ করা নিয়ে পুনর্মূল্যায়ণের আবেদন খারিজ করেছে আদালত।

অপরিশোধিত ঋণ সংক্রান্ত টেলিকম সংস্থাগুলির কোনও যুক্তি শুনতে রাজি হল না সুপ্রিম কোর্ট। ১.৬ লাখ কোটি টাকার ওই বকেয়া ঋণ শোধ করা নিয়ে পুনর্মূল্যায়ণের আবেদন খারিজ করেছে আদালত।

অ্যাডজাস্টেড গ্রস রেভিনিউ (AGR) সংক্রান্ত টেলিকম সংস্থাগুলির অপরিশোধিত ঋণ নিয়ে পুনর্মূল্যায়নের আবেদনের শুনানিতে বিচারপতি অকরুণ মিশ্র, বিচারপতি এস আবদুল নাজির ও বিচারপতি এম আর শাহের সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ এ দিন সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে, ‘এক সেকেন্ডের জন্যও’ এই বিষয়ে কোনও যুক্তি শুনতে রাজি নয় আদালত।

এর আগে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে টেলিকম সংস্থাগুলির বকেয়া ঋণ শোধ করার জন্য ২০ বছর সময় চেয়ে শীর্ষ আদালতের কাছে আবেদন জানানো হয়েছিল। কিন্তু সেই আর্জি এ দিন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ। শুনানিতে বেঞ্চ জানিয়েছে, ১৫ অথবা ২০ বছর কোনও যুক্তিযুক্ত সময়কাল হতে পারে না। আদালতের নির্দেশ, সংস্থাগুলিকে ঋণ পরিশোধের জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা উল্লেখ করতে হবে।

পাশাপাশি, বেশ কিছু টেল্কম সংস্থা নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করার বিষয়টিও যাচাই করে দেখা হবে বলে জানিয়েছে আদালত। 

প্রসঙ্গত, গত ১৮ জুন কেন্দ্রীয় টেলিকম দফতরের তরফে শীর্ষ আদালতকে জানানো হয় যে, নন-টেলিকম সংস্থাগুলির কাছে AGR বাবদ প্রাপ্য ৪ লাখ কোটি টাকার ৯৬% তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

আদালতের তরফে ভারতী এয়ারটেল, ভোডাফোন আইডিয়া-র মতো বেসরকারি টেলিকম সংস্থাগুলিকে বকেয়া ঋণ পরিশোধের জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা জানানোর পাশাপাশি এই খাতে কিছু অর্থ জমা দিয়ে নিজেদের সদিচ্ছার নমুনা পেশ করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে গত ১০ বছরে সংস্থার যাবতীয় লেনদেনের খতিয়ান পেশ করার নির্দেশও দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

বন্ধ করুন