বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'করোনা কেস শূন্য' বলে দাবি এই দেশগুলির! আদৌ সত্যি?
ফাইল ছবি : রয়টার্স  (via REUTERS)
ফাইল ছবি : রয়টার্স  (via REUTERS)

'করোনা কেস শূন্য' বলে দাবি এই দেশগুলির! আদৌ সত্যি?

  • শুধু এখন নয়। প্রথম ওয়েভের সময় থেকেই এই দেশগুলিতে নাকি একটাও করোনা কেস ধরা পড়েনি। তাদের এই দাবি কতটা সত্যি?

বিশ্বজুড়ে এখন কিছুটা স্তিমিত করোনা। তবে এখনও নতুন সংক্রমণ হচ্ছে বহু দেশেই। তারই মধ্যে ১০০% করোনা-শূন্য বলে নিজেদের দাবি করছে বেশ কিছু দেশ। শুধু এখন নয়। প্রথম ওয়েভের সময় থেকেই এই দেশগুলিতে নাকি একটাও করোনা কেস ধরা পড়েনি। তাদের এই দাবি কতটা সত্যি?

উত্তর কোরিয়া

এই তালিকায় প্রথমেই নাম আসে উত্তর কোরিয়ার। আর উত্তর কোরিয়ার দাবি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছেন অনেকেই। সেদেশের 'সুপ্রিম লিডার' কিম জং উন ঘোষণা করেছেন, 'আমাদের রাষ্ট্রে একটাও করোনা কেস ধরা পড়েনি।' কিন্তু উত্তর কোরিয়া যে সমস্ত খবর চেপে যেতে সিদ্ধহস্ত, তা বলাই বাহুল্য।

ফাইল ছবি : রয়টার্স 
ফাইল ছবি : রয়টার্স  (via REUTERS)

চলতি বছর জুনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে রিপোর্ট দেয় উত্তর কোরিয়া। তাতে জানানো হয় যে, ৩০ হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। একটিও পজিটিভ আসেনি।

একদিকে এই দাবি কিছুটা বিশ্বাসযোগ্য। কারণ নর্থ কোরিয়ায় এমনি সময়েই কার্যত অন্য দেশের কারও প্রবেশের সেভাবে সুযোগ থাকে না। তার উপর করোনার জন্য আরও কড়াকড়ি করা হয়েছিল। ফলে বাইরে থেকে সংক্রমণ প্রবেশের সম্ভাবনা কম।

তা সত্ত্বেও, একটিও যে পজিটিভ কেস হয়নি, তা অবিশ্বাস্য। এর মূল কারণ হল সে দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা। তাছাড়া চিন ও উত্তর কোরিয়ার সীমানার কিছু অংশ দিয়ে অনুপ্রবেশ হতেই থাকে। ফলে কিছু উত্তর কোরিয়ার বাসিন্দার করোনা হতে বাধ্য।

সম্প্রতি নর্থ কোরিয়ার পিয়ংইয়াং-এ সেদেশের প্রতিষ্ঠা দিবসের একটি ছবি প্রকাশ্যে আসে। সেখানে দেখা যায় হ্যাজম্যাট স্যুট পরে রাস্তা দিয়ে যাচ্ছে জওয়ানরা। এটাই যে কোভিডের উপস্থিতির ইঙ্গিত দেওয়ার জন্য যথেষ্ট, তা বলাই বাহুল্য।

তুর্কমেনিস্তান

তুর্কমেনিস্তানও দাবি করেছে যে তাদের দেশে কোনও করোনা সংক্রমণের ঘটনা নেই। সেখানকার প্রেসিডেন্ট গুরবাঙ্গুলি বেরদিমুখামেদভ ইউনাইটেড নেশন্সকে জানান, 'আমাদের দেশে কিছু করোনা কেসের কথা শোনা যাচ্ছে। কিন্তু সেটা ভুয়ো খবর। এখানে একজনেরও করোনা হয়নি।' এক সময়ে সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল মধ্য এশিয়ার এই দেশ।

প্রেসিডেন্ট গুরবাঙ্গুলি বেরদিমুখামেদভ। ছবি : এপি
প্রেসিডেন্ট গুরবাঙ্গুলি বেরদিমুখামেদভ। ছবি : এপি (AP)

যদিও সেদেশের সমাজকর্মীরা অন্য কথা বলছেন। সিএনএন-কে দেওয়া গোপন সাক্ষাত্কারে তাঁরা বলেন, তুর্কমেনিস্তানের সরকার খবর চেপে যাচ্ছে। হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকর্মীদের চাপ দিচ্ছে প্রশাসন। বাস্তবে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে তুঙ্গে সংক্রমণ সেখানে। সাধারণ মানুষের মধ্যে সেভাবে সচেতনতার প্রচারও করা হচ্ছে না।

এছাড়াও প্রশান্ত মহাসাগরের তিনটি দ্বীপ জানিয়েছে, সেখানে কোনও করোনা সংক্রমণ নেই।

বন্ধ করুন