বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আমার দলকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চলছে :‌ মায়াবতী
বিএসপি নেত্রী মায়াবতী (ফাইল ছবি: পিটিআই) (HT_PRINT)

আমার দলকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চলছে :‌ মায়াবতী

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এমন একটা সময়ে দুই দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দিল যখন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে ঘিরে বিরোধীদের মধ্যে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার সময় এসেছে।

‌বহুজন সমাজ পার্টি নেত্রী মায়াবতীকে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। রাহুলের এই মন্তব্যের পাল্টা তোপ দেগেছেন মায়াবতী। কংগ্রেসকে নিশানা করেই তাঁর বক্তব্য, ‘‌কংগ্রেস নিজের চিন্তা নিজে করুক। এই ধরনের মন্তব্য করে আসলে আমার দলকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চলছে।’‌

একইসঙ্গে কংগ্রেসকে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়িয়ে মায়াবতী জানান, ‘‌আমরা এমন দল নই, যেখানে রাহুল গান্ধীর মতো নেতা প্রধানমন্ত্রীকে সংসদের মধ্যে জড়িয়ে ধরেন। আমরা এমন দল নই যারা সারা বিশ্বের কাছে হাসির পাত্র হয়ে ওঠে।’‌ একইসঙ্গে বিজেপিকে আক্রমণ করেও মায়াবতী জানান, বিজেপি ও আরএসএস আসলে কংগ্রেস মুক্ত ভারতই চাইছে না, বিরোধী মুক্ত ভারত চাইছে। আসলে বিজেপি চাইছে চিনের মতো রাজনৈতিক ব্যবস্থা এই দেশে কায়েম হোক, যেখানে একটি দলের হাতেই ক্ষমতার রাশ থাকবে। তাঁর দলের সঙ্গে বিজেপির যে কোনও সমঝোতা নেই, সেই কথা বুঝিয়ে দিয়ে মায়াবতী স্পষ্ট জানিয়ে দেন, বিএসপি বিজেপির বি টিম নয়। সংবাদমাধ্যমের একাংশকে এক হাত নিয়ে মায়াবতী জানান, সংবাদমাধ্যমের একটা অংশ তাঁর দলের ভাবমূর্তি খারাপ করার চেষ্টা করছে।

গতকালই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী মায়াবতীর সম্পর্কে বলতে গিয়ে জানিয়েছিলেন, কংগ্রেসের তরফে বিএসপি নেত্রী মায়াবতীকে মুখ্যমন্ত্রীর পদে আসীন হওয়ার জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তিনি কোনও সাড়া দেননি। একইসঙ্গে কংগ্রেস নেতা অভিযোগের সুরেই বলেছিলেন, ‘‌কাঁসিরামজি দলিতদের মুখ হিসাবে উত্তরপ্রদেশে নিজেকে তুলে ধরেছিলেন। কিন্তু মায়াবতীজি দলিতদের জন্য কিছু করেননি। তিনি সিবিআই, ইডি, পেগাসাস থেকে বাঁচার জন্য বিজেপিকে ক্ষমতায় থাকার জন্য সুযোগ করে দিচ্ছেন।’‌ রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এমন একটা সময়ে দুই দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দিল যখন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে ঘিরে বিরোধীদের মধ্যে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার সময় এসেছে। উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশে সম্প্রতি শেষ হওয়া বিধানসভা ভোটে মায়াবতীর দল পেয়েছে একটি মাত্র আসন ও কংগ্রেস পেয়েছে ২টি আসন।

বন্ধ করুন