বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > যাঁরা মদ খান, তাঁরা মহাপাপী, ভারতীয় নন, দাবি নীতিশ কুমারের
যাঁরা মদ খান, তাঁরা মহাপাপী, ভারতীয় নন, দাবি নীতিশ কুমারের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

যাঁরা মদ খান, তাঁরা মহাপাপী, ভারতীয় নন, দাবি নীতিশ কুমারের

  • ২০১৬ সালের এপ্রিল মাসে মদ বিক্রি ও মদ্যপানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নীতীশ কুমার সরকার।

বিহারে মদ নিষিদ্ধ। কিন্তু তা সত্বেও বিষমদ খেয়ে মৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছে। এই পরিস্থিতিতে মদ্যপানকারীদের তীব্র ভাষায় আক্রমণ করলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। তাঁর মতে, ‘‌মদ্যপান যাঁরা করেন, তাঁরা ভারতীয় নন, মহাপাপী।’‌

সম্প্রতি বিধানসভায় এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী জানান, ‘‌ক্ষতিকারক জেনেও লোকজন মদ খান। পরিণতি যা হবে, তার জন্য নিজেরাই দায়ী থাকবেন, রাজ্য সরকার নয়। এটা তাঁদের দোষ। ক্ষতি হবে জেনেও তাঁরা মদ্যপান করেন।’‌ একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট করে দেন, বিষ মদ খেয়ে যদি কারও মৃত্যু হয়, সেইসব লোকজনদের পরিবারকে অর্থ সাহায্য করার জন্য রাজ্য সরকার আদৌ দায়বদ্ধ নয়। তাঁর কথায়, ‘‌মহাত্মা গান্ধী মদ খাওয়ার বিরোধিতা করেছিলেন। যাঁরা তাঁর নীতির বিরুদ্ধে যায়, তাঁরা মহাপাপী। আমি তাঁদের ভারতীয় বলে মনে করি না।’‌

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের এপ্রিল মাসে মদ বিক্রি ও মদ্যপানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নীতীশ কুমার সরকার। গত বুধবার বিহার বিধানসভায় একটি সংশোধনী বিল পাশ করা হয়েছে। এই বিল পাশের মাধ্যমে প্রথমবার অপরাধীদের জন্য শাস্তি লাঘব করা হয়েছে। সংশোধিত আইনে মদ খাওয়ার জন্য অভিযুক্ত ব্যক্তিদের জরিমানা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হবে। কেউ যদি জরিমানা না দেন, তাহলে তাঁদের এক মাসের হাজতবাস পর্যন্ত হতে পারে।

বন্ধ করুন