বাড়ি > ঘরে বাইরে > আদালতে চ্যালেঞ্জ করা হবে না ভারত সরকারের সিদ্ধান্ত- টিকটক
টিকটক (ফাইল ছবি)  (REUTERS)
টিকটক (ফাইল ছবি)  (REUTERS)

আদালতে চ্যালেঞ্জ করা হবে না ভারত সরকারের সিদ্ধান্ত- টিকটক

বিভিন্ন মহলে খবর রটছিল যে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হবে এই চিনা অ্যাপটি। 

সোমবার রাতে টিকটক সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপ ব্যান করে দিয়েছে ভারতীয় সরকার। এটিকে চিনের বিরুদ্ধে ডিজিটিল সার্জিকাল স্ট্রাইক বলে জানিয়েছেন আইটি মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। এই আদেশের বিরুদ্ধে অবশ্য আদালতে যাওয়ার কথা ভাবছে না টিকটক। 

বৃহস্পতিবার সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে কিছু রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে যে ভারত সরকারের আদেশের বিরুদ্ধে আদালতে দ্বারস্থ হবে টিকটক। কিন্তু এগুলি নিছকই গুজব বলে দাবি জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপের। টিকটকের মুখপাত্র বলেন যে তেমন কোনও পরিকল্পনা নেই তাদের।

ভারত সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করে সমস্যাগুলি সমাধান করতে চায় বলে জানিয়েছে চিনা সংস্থাটি। প্রসঙ্গত নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে ভারত ও ভারতবাসীর, এই কারণ দেখিয়ে টিকটক সহ ৫৯টি অ্যাপকে ব্যান করে দেওয়া হয়। এদিনও যদিও টিকটকের মুখপাত্র বলেন যে তারা যাবতীয় সরকারি আইন কানুন মেনেই কাজ করেন। ইউজারদের প্রাইভেসি, নিরাপত্তা ও তথ্যের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা তাদের প্রধান উদ্দেশ্য বলে জানান টিকটকের মুখপাত্র। 

এর আগে মঙ্গলবার টিটটক ইন্ডিয়ার প্রধান নিখিল গান্ধী বলেছিলেন যে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের তরফে আত্মপক্ষ সমর্থন করার ও যাবতীয় প্রশ্নের কৈফিয়ত দেওয়ার জন্য। ভারত সরকারের সঙ্গে একযোগে এই কাজ করতে চায় বলেই তিনি জানিয়েছিল। একই সঙ্গে টিকটকের তরফে বলা হয়েছিল যে এই নিষেধাজ্ঞা সাময়িক, চূড়ান্ত নয়। দুই দিনে যে টিকটর নিজেদের অবস্থান বদলায়নি, তা সাফ হয়ে গেল। 

প্রসঙ্গত এখন আর গুগল প্লে স্টোর বা  অ্যাপ স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে না টিকটক। যাদের আগে অ্যাকাউন্ট ছিল, তারাও ব্যবহার করতে পারছেন না অ্যাপটি। 

 

বন্ধ করুন