বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিপ্লবের ত্রিপুরায় প্রার্থী দিতে পারেনি TMC, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এগিয়ে BJP
 ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব
 ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব

বিপ্লবের ত্রিপুরায় প্রার্থী দিতে পারেনি TMC, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এগিয়ে BJP

  • স্থানীয় সূত্রে খবর, আগামী ২৫শে নভেম্বর ত্রিপুরায় পুরভোট। ৩রা নভেম্বর ছিল মনোনয়ন জমার শেষ দিন। কিন্তু সেই নির্বাচনে মনোনয়নই জমা দেয়নি বিরোধীরা।

বিপ্লব দেব নন, বিগ ফ্লপ দেব। গত রবিবারই আগরতলার রবীন্দ্র শতবার্ষিকী হলের সামনের রাস্তায় বক্তব্য দিতে গিয়ে এভাবে শ্লেষ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বিগ ফ্লপ দেবের বিসর্জন তেইশে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন অভিষেক। কিন্তু তথাকথিত বিসর্জনের প্রস্তুতি তো দূরের কথা, ত্রিপুরায় নতুন করে বোধন শুরু হয়েছে বিজেপির। এসবের মধ্যেই সাতটি পুরসভা ও নগর পঞ্চায়েতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গেল গেরুয়া শিবির। দেখা যাচ্ছে শান্তিরবাজার, উদয়পুর, বিশালগড়, মোহনপুর, কমলপুর, জিরানিয়া ও রানির বাজার পুরসভায় ভোট হওয়ার আগেই কার্যত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গিয়েছে বিজেপি। স্থানীয় সূত্রে খবর, আগামী ২৫শে নভেম্বর ত্রিপুরায় পুরভোট। ৩রা নভেম্বর ছিল মনোনয়ন জমার শেষ দিন। কিন্তু সেই নির্বাচনে মনোনয়নই জমা দেয়নি বিরোধীরা।

তবে বিরোধীদের একই সুর, গেরুয়া সন্ত্রাসের জেরেই মনোনয়ন জমা দেওয়া যায়নি। তবে আগরতলা কর্পোরেশনের ক্ষেত্রে অবশ্য ৫১টি আসনেই প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল।কিন্তু মহকুমায় বিভিন্ন পুরসভা ও নগর পঞ্চায়েতে প্রার্থী দিতে পারেনি তৃণমূল। ৩৩৪টি আসনের মধ্য়ে তৃণমূল প্রার্থী দিয়েছে ১২৫টিতে। এদিকে যে সিপিএম এর আগে ক্ষমতায় ছিল ত্রিপুরায়। তাদের অবস্থাও তথৈবচ। সিপিএম মাত্র ২২৭টি আসনে প্রার্থী দিতে পেরেছে। কংগ্রেস ১০১টি আসনে প্রার্থী দিতে পেরেছে। সেক্ষেত্রে অন্তত পুরনির্বাচনে আগে যথেষ্ট স্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। অনেকেই বলছেন বিগ ফ্লপ তো দূরের কথা, পুরসভা দখলের ক্ষেত্রে বড় সাফল্যের মুখে বিজেপি ব্রিগেড। 

 

বন্ধ করুন