বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সম্প্রীতির নজির! হিন্দু মন্দির ভাঙছে প্রোমোটার, রুখতে দিল্লি হাই কোর্টে মুসলিমরা
যেই মন্দির রক্ষা করতে মামলায় দায়ের হয় দিল্লি হাই কোর্টে (ছবি সৌজন্যে টুইটার)
যেই মন্দির রক্ষা করতে মামলায় দায়ের হয় দিল্লি হাই কোর্টে (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

সম্প্রীতির নজির! হিন্দু মন্দির ভাঙছে প্রোমোটার, রুখতে দিল্লি হাই কোর্টে মুসলিমরা

  • মন্দির চত্বরে থাকা ধর্মশালাটি ভাঙা হয় সম্প্রতি। এরপর মন্দির ভাঙার তোড়জোর শুরু হয়।

মন্দির বাঁচাতে আদালতে গিয়ে ভারতীয় সম্প্রীতির নজির দেখালেন দিল্লির মুসলিমরা। জানা গিয়েছে দিল্লির জামিয়া নগরের নূর নগর এলাকায় একটি মন্দিরকে অবৈধ ভাবে ভাঙা হচ্ছে। এই ঘটনার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। মামলাকারীরা মুসলিম। আদালতের কাছে মামলাকারীদের আবেদন, এটা নিশ্চিত করতে হবে যাতে মন্দির ভাঙাকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও ভাবে অশান্তি না ছড়ায় এলাকায়।

দিল্লি হাই কোর্টে মামলা দায়েরকারীরা দিল্লির জামিয়া নগর এলাকার ২০৬ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির বাসিন্দা। তাঁদের অভিযোগ, স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে মন্দিরটি ভাঙার পরিকল্পনা করছে প্রোমোটাররা। যদিও এই কাজ বেআইনি। মন্দির চত্বরে থাকা ধর্মশালাটি ভাঙা হয় সম্প্রতি। এরপর মন্দির ভাঙার তোড়জোর শুরু হয়। সরানো হয় মন্দিরের ভেতরে থাকা মূর্তিগুলি। বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে এলে তাঁরা আদালতের দ্বারস্থ হন।

মামলাকারীদের দাবি, ১৯৭০ সালে সংশ্লিষ্ট মন্দিরটি তৈরি হয়েছিল নূর নগর এলাকায়। অন্যদিকে নূর নগর এলাকার অন্য একটি মন্দির ভেঙে ইতিমধ্যেই বেআইনি ভাবে নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। জামিয়া এই মামলার প্রেক্ষিতে দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব সচদেবের বেঞ্চ দিল্লি পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে, কোনও অবৈধ প্রক্রিয়ায় মন্দির চত্বর থেকে যাতে কোনও কিছু উচ্ছেদ না করা হয়। এদিকে এলাকায় শান্তি বজায় রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দিল্লি পুলিশকে।

বন্ধ করুন