বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘‌২০২৩ সালে বিজেপির টিকিটে লড়ব না’‌, বিস্ফোরক দাবি করলেন সুদীপ রায় বর্মণ
সুদীপ রায় বর্মণ
সুদীপ রায় বর্মণ

‘‌২০২৩ সালে বিজেপির টিকিটে লড়ব না’‌, বিস্ফোরক দাবি করলেন সুদীপ রায় বর্মণ

  • এই মন্তব্য করার পর থেকে ত্রিপুরায় নানা জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

তিনি বরাবরই বিপ্লব দেব বিরোধী। কলকাতায় এসে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে একবার দেখা করে গিয়েছিলেন তিনি। এমনকী ত্রিপুরা পুরসভা নির্বাচনের আগে পুলিশকে চিঠি দিয়ে উপযুক্ত পদক্ষেপ করতেও অনুরোধ করেছিলেন তিনি। হ্যাঁ, তিনি ত্রিপুরার বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মণ। যিনি এবার প্রকাশ্যেই জানিয়ে দিলেন, ২০২৩ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে আর লড়বেন না তিনি। তবে কার টিকিটে তিনি লড়বেন সে কথা খোলসা করেননি তিনি।

এই মন্তব্য করার পর থেকে ত্রিপুরায় নানা জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। অনেকে বলছেন, সুদীপ তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। আর এক পক্ষ বলছেন, কংগ্রেসের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন সুদীপ রায় বর্মণ। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক মোটেও ভাল নয়। কারণ তাঁর মন্ত্রিত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছিল। তারপর থেকেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন সুদীপবাবু।

ঠিক কী বলেছেন সুদীপ?‌ তিনি বলেন, ‘‌২০২৩ সালের নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে আর লড়ব না। ওই টিকিটে আর আগ্রহ নেই।’‌ সূত্রের খবর, সুদীপের সঙ্গে বিজেপি ছাড়তে পারেন আরও এক বিধায়ক আশিস রায়। ইতিমধ্যেই বিধায়ক আশিস দাস বিজেপি ত্যাগ করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে চাপে ত্রিপুরার বিজেপি।

এখন মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে এসেছেন। এই মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ নেতাই সুদীপ রায় বর্মণ। ত্রিপুরার পুরসভা নির্বাচনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। তাই তৃণমূল কংগ্রেসে সুদীপ যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। সুদীপবাবু আগে কংগ্রেস করতেন। তবে তিনি কোন দলে যাচ্ছেন এখনও জানাননি সুদীপ রায় বর্মন।

বন্ধ করুন