বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > শেষবেলায় কোপ ভারতের উপর, H-1B ভিসার অনুমোদন বন্ধের মেয়াদ বৃদ্ধি ট্রাম্পের
আমদাবাদ ট্রাম্প আসার পর আলিঙ্গন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
আমদাবাদ ট্রাম্প আসার পর আলিঙ্গন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

শেষবেলায় কোপ ভারতের উপর, H-1B ভিসার অনুমোদন বন্ধের মেয়াদ বৃদ্ধি ট্রাম্পের

  • তার জেরে আবারও ধাক্কা খাবেন ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীরা।

শেষবেলায় আবারও একবার ‘বন্ধু’ ভারতের উপর কোপ মারতে ছাড়লেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এইচ-১বি-সহ বিদেশি কর্মপ্রার্থীদের ভিসা এবং গ্রিন কার্ডের অনুমোদন বন্ধের মেয়াদ বাড়িয়ে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত করল ট্রাম্পের প্রশাসন। আগে যে মেয়াদ গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ছিল।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আমেরিকা নাগরিকদের চাকরি ‘রক্ষা’-র জন্য গত এপ্রিল এবং জুনে দুটি ঘোষণাপত্র জারি করে বিধিনিষেধ চাপিয়েছিলেন ট্রাম্প। ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বাজিমাতের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হয়নি। বরং নির্বাচনে হেরে আর কয়েকদিন পরেই হোয়াইট হাউস ছাড়তে হবে ট্রাম্পকে। তার আগে অবশ্য নিজের অবস্থানে অনড় থেকে গত বৃহস্পতিবার একটি ঘোষণাপত্র জারি করে এইচ-১বি-সহ বিদেশি কর্মপ্রার্থীদের ভিসায় অনুমোদন বন্ধের সময়সীমা বৃদ্ধি করেন। দাবি করেন, যে কারণে গত বছর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল, তার প্রয়োজনীয়তা এখনও ফুরিয়ে যায়নি। তার জেরে আবারও ধাক্কা খাবেন ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীরা। 

ট্রাম্প প্রশাসনের নয়া সিদ্ধান্তের ফলে এইচ-১বি ভিসার আবেদনের জন্য আরও কয়েক মাস অপেক্ষা করতে হবে ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের। তারপর অনুমোদন পাওয়ার সুযোগ আছে। একইসঙ্গে যাঁরা এইচ-১বি ভিসার পুনর্নবীকরণের চেষ্টায় ছিলেন, তাঁরাও ট্রাম্পের নয়া সিদ্ধান্তে বড়সড় ধাক্কা খেয়েছেন।

আগেই নয়া-নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আশ্বাস দিয়েছেন যে এইচ-১বি ভিসার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়া হবে। কারণ ট্রাম্পের অভিবাসন নীতি অত্যন্ত ‘নিষ্ঠুর’। তারপরও ট্রাম্পের ঘোষণায় মার্কিন সংবাদমাধ্যমের মতে, শেষবেলায় গুরুত্বপূর্ণ নীতি সংক্রান্ত বিষয়ে বাইডেন প্রশাসনকে চাপে রেখে যাওয়ার চেষ্টা করছে ট্রাম্প প্রশাসন।

বন্ধ করুন