সাক্ষী তাজ। মুঘল স্থাপত্য দর্শনে মুগ্ধ হলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি।
সাক্ষী তাজ। মুঘল স্থাপত্য দর্শনে মুগ্ধ হলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি।

তাজের রূপে বিভোর ট্রাম্প-মেলানিয়া, বসলেন না ডায়ানার আসনে

  • প্রথম ভারত সফরে গোধূলির আলোয় তাজ দর্শনের শখ ছিল মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের। সূর্যাস্তের আলোয় সম্রাট শাহজাহানের অসামান্য কীর্তি তাঁকে কিছু ক্ষণের জন্য বাক্যহারা করল।

তাজ মহলের রূপে বিস্মিত হলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মার্কিম ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। তাজের রূপে মোহিত হলেন ট্রাম্পকন্যা ইভাঙ্কা ও তাঁর স্বামী জ্যারেড কুশনারও।

প্রথম ভারত সফরে গোধূলির আলোয় তাজ দর্শনের শখ ছিল মেলানিয়া ট্রাম্পের। সফরের আগে থেকেই তিনি নিজের পছন্দের কথা প্রকাশ করেন। সোমবার সূর্যাস্তের আলোয় সম্রাট শাহজাহানের অসামান্য কীর্তি তাঁকে কিছু ক্ষণের জন্য বাক্যহারা করল।

সোমবার বিকেলে ট্রাম্প দম্পতিকে তাজ মহল ঘুরিয়ে দেখালেন সরকারি গাইড নিতিন সিং।ছবি সৌজন্যে এএনআই।
সোমবার বিকেলে ট্রাম্প দম্পতিকে তাজ মহল ঘুরিয়ে দেখালেন সরকারি গাইড নিতিন সিং।ছবি সৌজন্যে এএনআই।

বিস্মিত প্রেসিডেন্ট ভিজিটার্স বুকে লিখলেন, ‘তাজ মহল বিস্ময় উদ্রেক করে, ভারতের সমৃদ্ধ ও বৈচিত্র সংস্কৃতির এ এক কালজয়ী সাক্ষর।’

তাজ দর্শনের মুগ্ধতা ভিজিটার্স বুক-এ লিখে গেলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি।
তাজ দর্শনের মুগ্ধতা ভিজিটার্স বুক-এ লিখে গেলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি।

তাজ মহলের রূপে বিস্মিত হলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মার্কিম ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। তাজের রূপে মোহিত হলেন ট্রাম্পকন্যা ইভাঙ্কা ও তাঁর স্বামী জ্যারেড কুশনারও।

প্রথম ভারত সফরে গোধূলির আলোয় তাজ দর্শনের শখ ছিল মেলানিয়া ট্রাম্পের। সফরের আগে থেকেই তিনি নিজের পছন্দের কথা প্রকাশ করেন। সোমবার সূর্যাস্তের আলোয় সম্রাট শাহজাহানের অসামান্য কীর্তি তাঁকে কিছু ক্ষণের জন্য বাক্যহারা করল।

বিস্মিত প্রেসিডেন্ট ভিজিটার্স বুকে লিখলেন, ‘তাজ মহল বিস্ময় উদ্রেক করে, ভারতের সমৃদ্ধ ও বৈচিত্র সংস্কৃতির এ এক কালজয়ী সাক্ষর।’

তাজ মহল দর্শনে এসে কিন্তু প্রথা মেনে ডায়ানা সিটে বসে ছবি তুলতে রাজি হননি প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি। ১১২ বছরের প্রাচীন এই আসনে বসে একদা ছবি তুলিয়েছিলেন ব্রিটেনের প্রয়াত যুবরানি ডায়ানা। তারপর থেকে আসনের নামই হয়ে যায় ‘ডায়ানা সিট’। আন্তর্জাতিক বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি এখানে বসে ছুবি তুললেও সম্মত হননি ডোনাল্ড ও মেলানিয়া।

তাজের রূপ দেখে মুগ্ধ হন ট্রাম্পকন্যা ইভাঙ্কা ও তাঁর স্বামী জ্যারেডও। তাঁরা আবার মার্কিন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টাও বটে। প্রায় একঘণ্টা তাজ চত্বরে কাটান ট্রাম্প পরিবার।

তাজ মহলে আসার পথে উত্তর প্রদেশের খেড়িয়া টেকনিক্যাল এয়ারপোর্টে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও তাঁর পরিবারকে স্বাগত জানান মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও রাজ্যপাল আনন্দী বেন প্যাটেল। ট্রাম্পের হাতে তাজ মহলের একটি প্রতিকৃতি তুলে দেন আদিত্যনাথ।

বিমানবন্দর থেকে তাজ মহল যাওয়ার ১৪ কিমি পথে বিভিন্ন মোড়ে রকমারি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল রাজ্য প্রশাসন। সেই সব জায়গার উপর দিয়ে যাওয়ার সময় গানের তালে হাততালি দিতে দেখা গিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে।

ট্রাম্পের সফরের আগে তাজ মহল ও সংলগ্ন এলাকার সৌন্দর্যায়নে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করে রাজ্য সরকার ও জাতীয় পুরাতত্ত্ব বিভাগ (এএসআই)। শাহ জাহান ও তাঁর স্ত্রী মুমতাজ মহলের সমাধির উপরে বসানো শ্বেতপাথরের উপরে মাড প্যাক প্রক্রিয়া বাস্তবায়িত করা হয়, বাগানে ফুলগাছের বিশেষ যত্ন নেও হয় ও সচল করা হয় প্রাণহীন পোয়ারাগুলি। এমনকি সমাধির উপরে ঝুলন্ত ঝাড়বাতির খোলনলচে পালটে ঝকঝকে করা হয়।

এ দিন সকাল ১১.৩০ মিনিটের পরে সাধারণ দর্শণার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় তাজ মহলের টিকিট বিক্রির কাউন্টার। দুপুর ১২টার মধ্যে দর্শকশূন্য করে পেলা হয় তাজ প্রাঙ্গন।

বন্ধ করুন