বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সেনা থেকে শিখদের সরানো নিয়ে ভুয়ো ভিডিয়োর নেপথ্যে পাকিস্তান,পদক্ষেপ কেন্দ্রের
সেনা থেকে শিখদের সরানো নিয়ে ভুয়ো ভিডিয়োর নেপথ্যে পাকিস্তান। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

সেনা থেকে শিখদের সরানো নিয়ে ভুয়ো ভিডিয়োর নেপথ্যে পাকিস্তান,পদক্ষেপ কেন্দ্রের

  • সেনা থেকে শিখদের অপসারণের ভুয়ো ভিডিয়োর পাকিস্তানি যোগ সামনে এল, ব্লক একাধিক সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট।

পঞ্জাবে প্রধানমন্ত্রীর কনভয়ের নিরাপত্তায় গাফলতির অভিযোগ ঘিরে বিতর্কের মাঝেই সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় একটি ভিডিয়ো৷ ভিডিয়োতে দাবি করা হয়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ঠিক ভারতীয় সেনা থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে শিখ জওয়ানদের। এহেন মিথ্যা, প্ররোচণামূলক ভিডিয়ো ছড়িয়ে দেওয়ার দায়ে একাধিক সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করল কেন্দ্র।

ক্যাবিনেট বৈঠকের ভুয়ো ভিডিয়ো ছড়ানোর জন্য ফেসবুক, টুইটার, টেলিগ্রামের বহু অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছে কেন্দ্র। জানা গিয়েছে, সরকারের তরফে মোট ৭৩টি টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্লক করা হয়েছে। এই অ্যাকাউন্টগুলি পাকিস্তান থেকে খোলা হয় বলে জানা গিয়েছে। তাছাড়া চারটি ইউটিউব ভিডিয়ো সরানো হয়েছে। একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্টও সরানো হয়েছে। এদিকে ভুয়ো পোস্ট ছড়ানো সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলির মালিকদেরও চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া চলছে।

সম্প্রতি প্রেস ইনফর্মেশন ব্যুরোর ফ্যাক্ট চেক করে টুইট করে জানায়, ক্যাবিনেট কমিটির বৈঠকের ভাইরাল ভিডিয়োটি আসলে ভুয়ো৷ সেই ভিডিওটিতে একাধিক ক্ষেত্রে যে শিখ-বিরোধী মতামত প্রকাশ পেয়েছিল তাও মিথ্যা৷ শুধু তাই নয়, পিআইবির তরফে জানানো হয়, কেন্দ্রীয মন্ত্রিসভার এমন কোনও আলোচনা বা বৈঠকই হয়নি৷

দিল্লি সাইবার সেলের পক্ষ থেকে ডিএসপি মালহোত্রা জানিয়েছেন, লক্ষ্য করে দেখা গিয়েছে সমস্ত সামাজিক মাধ্যমেই ভিডিয়োগুলি একই ধরনের হ্যাশট্যাগ একই ধরনের অ্যাকাউন্ট থেকেই ছড়িয়ে দেওয়া হয়৷ সমস্ত অ্যাকাউন্টগুলিই গতবছরের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যে খোলা হয়েছিল৷ সাইবার সেলের তদন্তের পর জানা গিয়েছে এর সঙ্গে যোগ রয়েছে পাকিস্তানেরও৷ তদন্তকারীদের আশঙ্কা, ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পটভূমি তৈরির জন্যই এই ধরনের ভিডিয়ো ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল।

বন্ধ করুন