বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Violence after Ind Pak match: ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে হিংসা ছড়াল লেস্টারে! গ্রেফতার ২, তদন্তে পুলিশ
 ব্রিটিশ পুলিশ বাহিনী। প্রতীকী ছবি। (Victoria Jones/PA via AP) (AP)

Violence after Ind Pak match: ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে হিংসা ছড়াল লেস্টারে! গ্রেফতার ২, তদন্তে পুলিশ

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় খবর রটতে থাকে যে ব্রিটেনের লেস্টারশায়ারের বিভিন্ন অংশে মসজিদ ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। যদিও তা নিয়ে ব্রিটিশ পুলিশ পরবর্তীকালে জানিয়েছে, ‘আমরা কিছু রিপোর্ট পেয়েছি সোশ্যাল মিডিয়ায় যেখানে মসজিদ ভাঙার কথা বলা হয়েছে। আমাদের স্টাফরা গ্রাউন্ডে রয়েছেন। আমাদের অফিসাররা নিশ্চিত করেছেন এটা ভুল তথ্য। দয়া করে সোশ্যাল মিডিয়ায় সত্যিটা শেয়ার করুন।’

ভারত পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে লেস্টারে বুকে হিংসার ছবি। পূর্ব লিসেস্টারে এই হিংসার ঘটনায় আপাতত ২ সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে হিংসা ছড়ানোর ষড়যন্ত্রের ও বিতর্কিত নিবন্ধ উদ্ধার হয়েছে। গোটা ঘটনার সূত্রপাত অগস্ট মাসের ২৮ তারিখে ভারত- পাকিস্তানের ম্যাচকে কেন্দ্র করে। 

উল্লেখ্য, গত ২৮ অগস্ট ভারত পাকিস্তানের এশিয়ার কাপ ম্যাচের পর থেকেই তপ্ত ব্রিটেনের লেস্টারশায়ার। সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ভারত হারাতেই মেল্টন রোড, বেলগ্র্যাভে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা যায়। এরপর, সোশ্যাল মিডিয়ায় খবর রটতে থাকে যে  লেস্টারশায়ারের বিভিন্ন অংশে মসজিদ ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। যদিও তা নিয়ে ব্রিটিশ পুলিশ পরবর্তীকালে জানিয়েছে, ‘আমরা কিছু রিপোর্ট পেয়েছি সোশ্যাল মিডিয়ায় যেখানে মসজিদ ভাঙার কথা বলা হয়েছে। আমাদের স্টাফরা গ্রাউন্ডে রয়েছেন। আমাদের অফিসাররা নিশ্চিত করেছেন এটা ভুল তথ্য। দয়া করে সোশ্যাল মিডিয়ায় সত্যিটা শেয়ার করুন।’ RTO অফিসে আর লাইন লাগাতে হবে না এই ৫৮ টি পরিষেবা পেতে! অনলাইনে কী কী চালু হল?

 এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও একটি তথ্য় উঠে এসেছে, যেখানে বলা হচ্ছে যে লন্ডনে হিন্দুদের ওপর হামলা হচ্ছে, তাঁদের ভয় দেখানো হচ্ছে, এবং মন্দিরে ভাঙচুর চালানো হচ্ছে। আর তার নেপথ্যে পাকিস্তানি সংগঠন রয়েছে বলেও খবর চাউর হয়েছে। এরপর থেকেই সংঘাতের মাত্রা বেড়ে গিয়েছে।

ব্রিটেনের পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত দুই পক্ষই যেন শান্তি বজায় রাখে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকায় বাড়তি পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। এদিকে, হিংসা রুখতে একটা বড়সড় জনগোষ্ঠীর বাড়িতে ঢুকে তল্লাশি চালাচ্ছে লন্ডন পুলিশ। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন