বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জঙ্গি সংগঠনে নিয়োগ করত যুবকদের, কেরলের তিন যুবকের কারাদণ্ড NIA কোর্টে
আইএস সংগঠনে নিয়োগ করত তারা। প্রতীকী ছবি। (Photo by - / AL-FURQAN MEDIA / AFP) (AFP)

জঙ্গি সংগঠনে নিয়োগ করত যুবকদের, কেরলের তিন যুবকের কারাদণ্ড NIA কোর্টে

  • ২০১৬ সালে তুর্কির পুলিশ মিদিলাজ ও আব্দুল রজ্জাককে গ্রেফতার করেছিল। দুমাস সেখানকার জেলে কাটিয়ে প্রত্যর্পণের মাধ্যমে তারা ভারতে আসে। এরপর এনআইএ তাদের হেফাজতে নেয়। পরে NIA জানতে পারে ইউকে হামসা নামে এক রাঁধুনি এই আইএসের আদর্শ এলাকায় ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ।

কেরলের কোচির এনআইএ কোর্ট শুক্রবার ইসলামিক স্টেট রিক্রুটমেন্ট মামলায় দুজনকে সাত বছরের কারাদন্ডের নির্দেশ দিল। ইউকে হামসা ও এম মিধিলাজকে বিগতদিনে এনআইএ হেফাজতে নিয়েছিল। তৃতীয়জন আব্দুল রজ্জাককে ৬ বছরের জেলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবারই তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল।

দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগে তাদের সাজা দেওয়া হয়েছে। এদিকে প্রথম দুজন ইতিমধ্য়েই ৫ বছর জেল খেটেছেন। সেক্ষেত্রে তারা দুবছর বাদে মুক্তি পাবেন। অপরজন কেভি আব্দুল রজ্জাক এক বছর বাদে মুক্তি পাবেন।  বালাপাট্টিনম আইএস মডিউল মামলা নামে পরিচিত এই ঘটনা। ২০১৫ সালে তারা সিরিয়াতে ২০জনকে পাঠানোর চেষ্টা করছিল বলে অভিযোগ। প্রথমে কেরল পুলিশ এনিয়ে তদন্ত শুরু করে। পরে ২০১৭ সালে এনআইএ তদন্তভার হাতে নেয়।

২০১৬ সালে তুর্কির পুলিশ মিদিলাজ ও আব্দুল রজ্জাককে গ্রেফতার করেছিল। দুমাস সেখানকার জেলে কাটিয়ে প্রত্যর্পণের মাধ্যমে তারা ভারতে আসে। এরপর এনআইএ তাদের হেফাজতে নেয়। পরে NIA জানতে পারে ইউকে হামসা নামে এক রাঁধুনি এই আইএসের আদর্শ এলাকায় ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ। ২০জনকে এই পথে নিয়ে আসার চেষ্টা করে। তবে তাদের মধ্যে কয়েকজন শেষ পর্যন্ত কোথায় গেলেন তার হদিশ এখনও পাওয়া যায়নি। 

বন্ধ করুন