বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অসমের উৎসবে চলল নাগাড়ে গুলি, একসঙ্গে মৃত্যু হল দু’‌জনের–জখম ১
পারিবারিক ঝগড়া থেকে মারামারি ও তার জেরে মৃত্যু, পাটুলিতে তুলকালাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
পারিবারিক ঝগড়া থেকে মারামারি ও তার জেরে মৃত্যু, পাটুলিতে তুলকালাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

অসমের উৎসবে চলল নাগাড়ে গুলি, একসঙ্গে মৃত্যু হল দু’‌জনের–জখম ১

  • এই পরিস্থিতির মধ্যেই এবার চলল গুলি। বুধবার রাতে অজ্ঞাতপরিচয়ের দুষ্কৃতিদের গুলিতে দু’‌জন সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

কয়েকদিন আগেই অসমে পা রেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছিলেন, এখানে শান্তি ফির এসেছে। বিজেপি সরকার অনেক কাজ করেছে। আরও করবে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই এবার চলল গুলি। বুধবার রাতে অজ্ঞাতপরিচয়ের দুষ্কৃতিদের গুলিতে দু’‌জন সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। একজন গুরুতর আহত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন বলে খবর।

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার কারবি অ্যাংলং জেলায় বুসু ডিমা উৎসব চলছিল। তখনই অজ্ঞাতপরিচয়ের দুষ্কৃতিরা এই উৎসবে হামলা চালায়। রাতের আলো–আঁধারিতে গুলি ছুটে আসায় আতঙ্ক তৈরি হয়েছিল। মুহূর্তের মধ্যে উৎসব বিষাদে পরিণত হয়। কে বা কারা এই গুলি চালালো তা এখনও পুলিশ কিনারা করতে পারেনি। তবে এই ঘটনায় চাপা ক্ষোভ তৈরি হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ এই ঘটনাটি ঘটেছে। একাধিক গুলি ছোঁড়া হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের উপর। জেলা সদর দীপু থেকে প্রায় ৪৫ কিমি দূরে খারনাইদিশা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটেছে। এই উৎসবে যখন গ্রামবাসীরা মেতে উঠেছিল তখনই গুলি চালানো হয়। কারবি অ্যাংলং জেলার পুলিশ সুপার দেবজিৎ দেওরি জানান, অতর্কিতে এই গুলি ছুটে আসায় দু’‌জনের মৃত্যু হয়েছে। আর একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গোটা বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

এই গুলি যে দু’‌জন মারা গিয়েছেন তাঁরা হলেন, এ.‌মাইবংশা(‌৬০)‌ এবং অমিত নুনিসা(‌৪২)‌। আর জখম ব্যক্তির নাম অসিত পোংলোসা(‌২৫)‌। ডিমাসা আদিবাসীরা এই উৎসব পালন করে থাকে। এটাকে এখানে বুসু ডিমা উৎসব বলা হয়। গ্রামে নতুন চাল উঠলে তখন এই উৎসব পালন করা হয়। খাওয়া–দাওয়া, পরস্পরকে নতুন জামাকাপড় দেওয়া এবং খেলাধূলা করে এই উৎসবে মেতে ওঠেন গ্রামবাসীরা। যার উপর চলল নির্মম গুলি।

বন্ধ করুন