বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বত্সোয়ানায় এক মাসের ব্যবধানে মিলল বিশালাকার ২ হিরে!
ছবি : টুইটার  (Twitter)
ছবি : টুইটার  (Twitter)

বত্সোয়ানায় এক মাসের ব্যবধানে মিলল বিশালাকার ২ হিরে!

বুধবার দেশের সরকারের হাতে নতুন হিরেটি তুলে দিল খনিজ উত্তোলক সংস্থা লুকারা ডায়মন্ড।

এক মাসের ব্যবধানে মিলল দুইটি বিশালাকার হিরে। আফ্রিকার বত্সোয়ানার খনিতে গত মাসেই মিলেছিল বিশালাকার একটি হিরে। এবার সেই একই খনিতে ফের মিলল ১,১৭৪ ক্যারাটের মেগা ডায়মন্ড। বুধবার দেশের সরকারের হাতে নতুন হিরেটি তুলে দিল খনিজ উত্তোলক সংস্থা লুকারা ডায়মন্ড।

এই নিয়ে এই একটি খনি থেকেই ১,০০০ ক্যারাটের উপর তিনটি হিরে মিলল। এছাড়াও ৪৭১, ২১৮, ১৫৯ ইত্যাদি ক্যারাটের উন্নত মানের হিরের সন্ধান মিলেছে এই খনি থেকেই।

প্রসঙ্গত, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম হিরে 'লেসেডি লা রোনা'-ও বত্সোয়ানার। ২০১৫ সালে এটির খোঁজ মেলে। কিন্তু বত্সোয়ানার হিরে উত্তোলনে এত বেশি সাফল্য কেন? এটি কাকতালীয় নয়। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, হিরে উত্তোলনের প্রক্রিয়ায় অনেক সময়েই অনেকটা এলাকা দ্রুত খুঁড়তে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এর ফলে অল্প সময়ে অনেকটা মাটি, পাথর গুঁড়ো হয়ে যায়। এরপর ঝাড়াই বাছাই করে নিলেই দ্রুত হীরে মেলে।

কিন্তু এই প্রক্রিয়ায় বড় হিরের টুকরোগুলি ভেঙে ছোটো হয়ে যায়। সেটি এড়াতেই বতসোয়ানার বেশিরভাগ খনিই এখন এক্স-রে প্রযুক্তি ব্যবহার করে। অর্থাত্ মাটির গভীরে কোথায় বড় হিরে রয়েছে, তা আগে থেকে জেনে সেই বুঝে খনন করা হয়।

বন্ধ করুন