বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অসমের নৌকাডুবিতে এখনও নিখোঁজ দুই, তল্লাশি অভিযানে NDRF-এর ৪টি দল
ব্রহ্মপুত্রে ডুবেছে দুটি যাত্রী বোঝাই নৌকা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
ব্রহ্মপুত্রে ডুবেছে দুটি যাত্রী বোঝাই নৌকা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

অসমের নৌকাডুবিতে এখনও নিখোঁজ দুই, তল্লাশি অভিযানে NDRF-এর ৪টি দল

  • নিখোঁজ দুই যাত্রীর বেঁচে থাকার আশা ক্ষীণ হচ্ছে বলে আশঙ্কা।

অসমের জোড়হাটের কাছে ব্রহ্মপুত্রে মুখোমুখি ধাক্কা খেয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল দু'টি নৌকা। সেই দুর্ঘটনায় দুটি নৌকাই ডুবে যায় ব্রহ্মপুত্রে। সেই ঘটনায় প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর এখনও দুই জন যাত্রী নিখোঁজ বলে জানা গিয়েছে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে অন্তত একজনের। তবে নিখোঁজ দুই যাত্রীর বেঁচে থাকার আশা ক্ষীণ হচ্ছে বলে আশঙ্কা। বর্তমানে তল্লাশি চালাতে নামানো হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৪টি দল।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্ঘটনাগ্রস্ত নৌকা দু’টির মধ্যে একটি জোড়হাটের নিমাতিঘাট থেকে মাজুলির দিকে যাচ্ছিল। আর মাজুলি থেকে আসা অন্য নৌকাটির গন্তব্য ছিল নিমাতিঘাট। সেই সময়েই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। তড়িঘড়ি উদ্ধারকাজ শুরু করে তারা। শেষ আসা খবর অনুযায়ী, ঘটনাস্থল থেকে ৮৫ জনকে উদ্ধার করেছেন এসডিআরএফ-এর সদস্যরা। মনে করা হচ্ছে, পুরুষ, মহিলা ও শিশু মিলিয়ে ৮৭ জন মানুষ এই নৌকা দুটিতে ছিলেন। তাঁদের মধ্যে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন দুই। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, নৌকা দু'টিতে যাত্রী ছাড়াও বেশ কয়েকটি দুই চাকা ও চারচাকার গাড়ি তোলা হয়েছিল। দুর্ঘটনায় সেগুলিও তলিয়ে যায়।

কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটল, তা জানতে ইতিমধ্যেই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের তরফে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা দুর্ঘটনাস্থলে যাবেন বলে জানা গিয়েছে। এর আগে বুধবারই রাজ্যের মন্ত্রী বিমল বোরা হিমন্তের নির্দেশে ঘটনাস্থলে যান।

 

বন্ধ করুন