বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আবুধাবিতে সম্ভাব্য ড্রোন হামলা ইয়েমেনের গোষ্ঠীর, মৃত ২ ভারতীয় ও ১ পাকিস্তানি
ইতিমধ্যে সন্দেহভাজন ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরানের ‘বন্ধু’ তথা ইয়েমেনের হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠী। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে রয়টার্স)
ইতিমধ্যে সন্দেহভাজন ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরানের ‘বন্ধু’ তথা ইয়েমেনের হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠী। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে রয়টার্স)

আবুধাবিতে সম্ভাব্য ড্রোন হামলা ইয়েমেনের গোষ্ঠীর, মৃত ২ ভারতীয় ও ১ পাকিস্তানি

ইতিমধ্যে সন্দেহভাজন ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরানের ‘বন্ধু’ তথা ইয়েমেনের হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠী।

সম্ভবত ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। তার জেরে আবুধাবিতে তিনটি তেলের ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণের খবর মিলেছে। সেইসঙ্গে আরও একটি ঘটনায় আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এলাকায় ‘ছোটোখাটো’ আগুন ধরে গিয়েছে। এমনটাই জানিয়েছে আবুধাবি পুলিশ। দুবাইয়ের আল-আরবিয়া ইংলিশের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ঘটনায় দুই ভারতীয় এবং এক পাকিস্তানির মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ছ'জন। ইতিমধ্যে সন্দেহভাজন ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরানের ‘বন্ধু’ তথা ইয়েমেনের হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠী।

সোমবার আবুধাবি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, মুসাফ্ফাহত আবুধাবি ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানির তেল সংরক্ষণের জায়গায় তিনটি তেলের ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণ হয়েছে। আবুধাবি বিমানবন্দরের এলাকায় ‘ছোটোখাটো’ আগুন ধরে গিয়েছে। একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে পুলিশের তরফে বলা হয়েছে, ‘প্রাথমিক তদন্তে ছোটো বিমানের মতো একটি জিনিসের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। যা সম্ভবত ড্রোন। তার জেরেই সম্ভবত বিস্ফোরণ হয়েছে এবং আগুন ধরে গিয়েছে।’ তবে বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর মেলেনি। পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

ইয়েমেনের হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠীর সামরিক মুখপাত্র জানিযেছে, 'সংযুক্ত আরব আমিরশাহির অনেকটা গভীরে' সামরিক অভিযান চালানো হয়েছে। আগামী কয়েক ঘণ্টায় বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে। সম্প্রতি হউতি মুভমেন্ট গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি সমর্থিত গোষ্ঠী। ২০১৯ সালে ইয়েমেনে সামরিক উপস্থিতি কমিয়ে দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি। কিন্তু ইয়েমেনের বাহিনীকে অস্ত্র প্রদান করে আসছে দুবাই। প্রশিক্ষণও প্রদান করা আসছে। একটি মহলের দাবি, সৌদি আরবেব আন্তঃসীমান্ত ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হউতি গোষ্ঠী। চালানো হয়েছে ড্রোন হামলাও। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতেও হামলার হুমকি দিয়েছিল।

বন্ধ করুন