বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Uddhav Thackeray: RSS প্রধান ভাগবতের ‘শিবলিঙ্গ’ মন্তব্যের সমর্থন উদ্ধবের, মহানবি বিতর্কে BJP-কে দাগলেন তোপ
মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে  (ANI)

Uddhav Thackeray: RSS প্রধান ভাগবতের ‘শিবলিঙ্গ’ মন্তব্যের সমর্থন উদ্ধবের, মহানবি বিতর্কে BJP-কে দাগলেন তোপ

  • কয়েকদিন আগেই আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত বলেছিলেন, সব মসজিদে শিবলিঙ্গ খুঁজতে যাওযা অমূলক। এবং তিনি জ্ঞানবাপী মসজিদ বিতর্ক আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের কথা বলেছিলেন। তাঁর সেই মন্তব্যকে এবার সমর্থন জানালেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী তথা শিবসেনা সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরে।

কয়েকদিন আগেই আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত বলেছিলেন, সব মসজিদে শিবলিঙ্গ খুঁজতে যাওযা অমূলক। এবং তিনি জ্ঞানবাপী মসজিদ বিতর্ক আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের কথা বলেছিলেন। তাঁর সেই মন্তব্যকে এবার সমর্থন জানালেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী তথা শিবসেনা সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরে। পাশাপাশি মহানবিকে নিয়ে করা প্রাক্তন বিজেপি নেত্রীর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে ভারতকে আন্তর্জাতিক মহলে যেভাবে কথা শুনতে হয়েছে, তা নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ দাগেন উদ্ধব ঠাকরে।

গতকাল ঔরঙ্গাবাদ পুর নির্বাচনের ঘণ্টি বাজিয়ে একটি জনসভা করেন উদ্ধব ঠাকরে। সেখানেই তিনি বিজেপির নাম না নিয়ে বলেন, ‘কোনও কোনও মানুষ স্বপ্নেও ভাবেনি, তবে মহাবিকাশ আঘাড়ি সরকার নিজেদের আড়াই বছর পূর্ণ করে ফেলেছে। আমাদের পিছনে ইডি, সিবিআই লেলিয়ে না দিয়ে কাশ্মীরে পণ্ডিতদের পরিস্থিতির উপর নজর দিন।’ উল্লেখ্য, সাম্প্রতিককালে ঔরঙ্গাবাদের নাম বদল নিয়ে জোর তরজা শুরু হয়েছে মারাঠা রাজনীতিতে। এদিকে ঔরঙ্গাবাদের মুসলিম ভোটারদের নিজেদের দিকে টানতে মরিয়া এআইএমআইএম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসিও। এই আবহে এখানে বহুমুখী লড়াই হতে চলেছে।

এদিকে উদ্ধব এদিন আরও বলেন, ‘আমরা শিবলিঙ্গ নিয়ে আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের সাম্প্রতিক বিবৃতিকে স্বাগত জানাই... বিজেপির একজন মুখপাত্রের বক্তব্যের কারণে জাতিকে অপমান সহ্য করতে হয়েছে। আর এখানে রাজ্যে বিজেপি লাউডস্পিকার এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে ইস্যু তৈরি করছে।’ এর আগে মোহন ভাগবত বলেছিলেন, ‘জ্ঞানবাপী মসজিদের প্রতি আমাদের ভক্তি কাজ করেছে, সেটা ঠিক আছে৷ তাই বলে দেশের সকল মসজিদে শিবলিঙ্গ খুঁজতে যাওয়ার কোনও মানে হয় না। কিছু জায়গার প্রতি আমাদের বিশেষ ভক্তি থাকতেই পারে৷ তাই বলে রোজ রোজ নতুন ঘটনা বের করে আনার কোনও মানে হয় না৷ বিতর্ক বাড়িয়ে কী লাভ? আমরা ইতিহাস বদলে দিতে পারি না৷ এ যুগের হিন্দু কিংবা মুসলিমরা এগুলো তৈরি করেনি৷ মুসলিমরা এদেশে আক্রমণ করে দেবস্থানগুলিকে ধ্বংস করে ভারতের স্বাধীনতাকামী মানুষদের নীতিবোধে কুঠারাঘাত করতে চেয়েছিল৷’

বন্ধ করুন