বাড়ি > ঘরে বাইরে > প্রয়াত রবার্ট ট্রাম্প, ছোটভাইকে হারিয়ে স্মৃতি রোমন্থনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট
নিউ ইয়র্কের হাসপাতালে প্রয়াত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছোটভাই রবার্ট স্টুয়ার্ট ট্রাম্প।
নিউ ইয়র্কের হাসপাতালে প্রয়াত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছোটভাই রবার্ট স্টুয়ার্ট ট্রাম্প।

প্রয়াত রবার্ট ট্রাম্প, ছোটভাইকে হারিয়ে স্মৃতি রোমন্থনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট

  • একাত্তর বছর বয়সে নিউ ইয়র্কের এক হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন একাত্তর বছরের রবার্ট ট্রাম্প।

শনিবার রাতে প্রয়াত হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছোটভাই রবার্ট স্টুয়ার্ট ট্রাম্প। একাত্তর বছর বয়সে নিউ ইয়র্কের এক হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়, জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট স্বয়ং।

শুক্রবার অসুস্থ রবার্টকে দেখতে হাসপাতালে যান ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভাইয়ের মৃত্যুসংবাদ জানিয়ে শোকগ্রস্ত প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘শুধু ভাই নয়, রবার্ট ছিল আমার প্রিয়তম বন্ধু। হৃদয়ে তার স্মৃতি অমর হয়ে থাকবে। ওকে খুব মিস করব, কিন্তু আমাদের আবার দেখা হবে। রবার্ট তোমাকে ভালোবাসি। রেস্ট ইন পিস।’

তিন বছরের বড় ডোনাল্ডের সঙ্গে বরাবরই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল রবার্ট ট্রাম্পের। গত জুন মাসেও ট্রাম্প পরিবারের কেচ্ছা সমৃদ্ধ একটি বই প্রকাশ রুখতে মামলা ঠুকেছিলেন তিনি। যদিও শেষ পর্যন্ত মামলা ধোপে না টেকায় তাঁর ভাইঝি মেরি ট্রাম্পের লেখা সেই বই পাঠকমহলে আলোড়ন তোলে। ওই মাসেই বিবিধ সমস্যায় জর্জরিত রবার্ট ট্রাম্পকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। আইসিইউ বিভাগে দীর্ঘ কাল তিনি চিকিৎসারত ছিলেন। 

দুজনেই দুঁদে ব্যবসায়ী হলেও ডোনাল্ডের সঙ্গে ব্যক্তিত্বের বড়সড় ফারাক ছিল রবার্ট ট্রাম্পের। প্রেসিডেন্ট নিজেই জানিয়েছিলেন, ‘আমার চেয়ে অনেক বেশি চুপচাপ রবার্ট। একমাত্র ওকেই আমি হানি সম্বোধন করি।’

ওয়াল স্ট্রিটে তাঁর আত্মপ্রকাশ কর্পোরেট ফাইন্যান্স বিশেষজ্ঞ হিসেবে। পরে তিনি পারিবারিক ব্যবসায় যোগ দিয়ে ট্রাম্প অর্গ্যানাইজেশন-এর শীর্ষস্থানীয় কর্তা হিসেবে রিয়েল এস্টেট বাণিজ্যে যুক্ত হন। তাঁর সম্পর্কে জীবনীকার গোয়েন্ডা ব্লেয়ার এপি-কে জানিয়েছেন, ‘রবার্ট যখন ট্রাম্প অর্গ্যানাইজেশন-এর সঙ্গে যুক্ত হলেন, তাঁকে আড়ালে ভালো ট্রাম্প নামে ডাকতেন কর্মীরা।’

১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন রিয়েল এস্টেট ডেভেলপার ফ্রেড ট্রাম্পের পাঁচ ছেলেমেয়ের মধ্যে কনিষ্ঠতম রবার্ট স্টুয়ার্ট ট্রাম্প। ছোটবেলায় ছোটভাই রবার্টের উপরে রীতিমতো দাদাগিরি ফলাতেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে ভাইয়ের আনুগত্য এবং ধীরেসুস্থ চলার স্বভাবের প্রশংসা বেশ কয়েক বার করেছেন তিনি। 

বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক রবার্ট ট্রাম্প পরবর্তীকালে বাবা ফ্রেড ট্রাম্পের রিয়েল এস্টেট ব্যবসার ব্রুকলিন অংশের দায়িত্বে ছিলেন। পরে ব্যবসার ওই অংশ বিক্রি হয়ে যায়। একদা ম্যানহাটন-এর পত্রিকার লেখনীতে ‘সাহসী মুখ’ হিসেবে পরিচিত রবার্ট গত কয়েক বছর ধরে লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা শুরু করেন। প্রায় এক দশক আগে প্রথম স্ত্রী ব্লেইন ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এর পর বিভিন্ন সেবামূলক কাজে জড়িয়ে পড়েন রবার্ট ট্রাম্প। চলতি বছরের গোড়ায় তাঁর সঙ্গে বিয়ে হয় অ্যান মারি প্যালানের। 

২০১৬ সালে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দৌড়ে তিনি আগাগোড়া ডোনাল্ডের পাশে ছিলেন। এক সাক্ষাৎকারে অকপটে জানিয়েছিলেন ডোনাল্ডের প্রতি নিজের ‘এক হাজার শতাংশ’ সমর্থনের কথা। তবে কখনই প্রচারের আলোয় আসতে ইচ্ছুক ছিলেন না তিনি। কর্মজীবন থেকে অবসর নিয়ে হাডসন ভ্যালি অঞ্চলে নিভৃত জীবন বেছে নিয়েছিলেন। শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত এ ভাবেই কাটিয়ে গেলেন আপাদমস্তক ভদ্রলোক হিসেবে সুবিদিত রবার্ট ট্রাম্প। 

বন্ধ করুন