বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Dosa sold as Naked Crepe: 'Naked Crepe' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকায় ধোসা বেচছে মার্কিন রেস্তোরাঁ! হতভম্ব নেটপাড়া
'Naked Crepe' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকায় ধোসা বেচছে মার্কিন রেস্তোরাঁ! হতভম্ব নেটপাড়া। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে সোশ্যাল মিডিয়া)

Dosa sold as Naked Crepe: 'Naked Crepe' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকায় ধোসা বেচছে মার্কিন রেস্তোরাঁ! হতভম্ব নেটপাড়া

  • Dosa sold as Naked Crepe: রাশভারী 'Naked Crepe' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকায় ধোসা বেচছে মার্কিন রেস্তোরাঁ। তা দেখে উলটে পড়ে গেলেন নেটিজেনরা। নেটিজেনদের প্রশ্ন, ভারতীয় খাবারের এইসব উদ্ভট নাম কেন ব্যবহার করা হচ্ছে?

আদতে ধোসা। তাতে রাশভারী 'Naked Crepe' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকায় ধোসা বেচছে মার্কিন রেস্তোরাঁ। এমনই দাবি করলেন এক মহিলা। যে ঘটনায় হতভম্ব হয়ে গেল নেটপাড়া। শুধু তাই নয়, ওই মহিলার দাবি, দক্ষিণ ভারতের একাধিক পরিচিত খাবারের নামও পালটে হাজার-হাজার টাকা নিচ্ছে মার্কিন রেস্তোরাঁ।

সম্প্রতি এক নেটিজেন টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেন। তাতে মার্কিন রেস্তোরাঁর মেনু আছে। 'Dunked Doughnut Delight', 'Dunked Rice Cake Delight', ‘Naked Crepe’ এবং 'Smashed Potato Crepe'-র মতো বিভিন্নরকম পদ দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় মুদ্রায় দাম মোটামুটি ১,০০০ টাকা থেকে ১,৪০০ টাকার মতো পড়ছে।

তবে সেই মেুুনকার্ড দেখে ভিমরি খেয়েছেন নেটিজেনরা। তাঁদের বক্তব্য, দক্ষিণ ভারতের অতি পরিচিত সব পদের রাশভারী নাম দিয়ে বেশি টাকা নিচ্ছে মার্কিন রেস্তোরাঁ। ধোসাকে যেমন ‘Naked Crepe’-র মতো ‘স্টাইলিশ' নাম দিয়ে ১,৪০০ টাকার মতো দেওয়া হয়েছে। কোনওটার দাম আবার ১,৩০০ টাকা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: Woman raising fund to 'Study' in Harvard: হার্ভার্ডের পড়তে লাগবে ২৩ লাখ! অনলাইনে টাকা তুলতে গিয়ে কটাক্ষের মুখে তরুণী

শুধু তাই নয়, নেটিজেনদের প্রশ্ন, ভারতীয় খাবারের এইসব উদ্ভট নাম কেন ব্যবহার করা হচ্ছে? এক নেটিজেন বলেন, 'ওরা কেন আসল নাম ব্যবহার করে না? অন্যান্য বিষয়টি ব্যাখা করা যেতে পারে। সুশিকে সর্বত্র সুশি বলা হয়।' অপর একজন বলেন, 'পুরোটাই মার্কেটিং। উচ্চশ্রেণির খাবার হিসেবে পরিচিত। ভারতীয় খাদ্যের সেরকম (সুশির পর্যায়ের) নামডাক নেই।'

বন্ধ করুন