বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ৮ কোটি কোভিড ভ্যাকসিন বিলি করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, পেতে পারে ভারতও
ফাইল ছবি : রয়টার্স  (Reuters)
ফাইল ছবি : রয়টার্স  (Reuters)

৮ কোটি কোভিড ভ্যাকসিন বিলি করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, পেতে পারে ভারতও

সোমবার এমনটাই ঘোষণা করলেন সে দেশের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এই দেশগুলির তালিকায় থাকতে পারে ভারতও।

করোনার দ্বিতীয় ওয়েভে বিধ্বস্ত দেশগুলির পাশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। করোনা মোকাবিলার স্বার্থে বিভিন্ন দেশে পাঠানো হবে ৮ কোটি ডোজ করোনা টিকা। সোমবার এমনটাই ঘোষণা করলেন সে দেশের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এই দেশগুলির তালিকায় থাকতে পারে ভারতও।

প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন দেশে মোট ২ কোটি ডোজ করোনা টিকা পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে থাকছে ফাইজার, মডার্না ও জনসন অ্যান্ড জনসনের কোভিড নাইন্টিন টিকা। শুধু তাই নয়, আগের প্রতিশ্রুতি মতো ৬ কোটি অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাও বন্টন করা হবে।

যদিও ঠিক কোন কোন দেশ কত ডোজ করে এই সাহায্য পাবে, তাই নিয়ে কোনও পরিসংখ্যান এখনও প্রকাশ করা হয়নি। তবে, ভারত সেই তালিকায় থাকবে বলেই মনে করা হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, ভারতকে তাহলে কোন সংস্থার টিকা দেওয়া হবে?

অ্যাস্ট্রাজেনেকার যে টিকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিভিন্ন দেশে ভাগ করে দেবে বলেছে, সেটি কিন্তু খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই এখনও ছাড়পত্র পায়নি। এমনকি এই টিকা সংগ্রহের চেষ্টাও করেনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রস্তুত, ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটে উত্পাদিত এই টিকা ভারতে কোভিশিল্ড নামে প্রচলিত।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যদিও আগে থেকে সিরাম ইনস্টিটিউটের কাছে মোট ৬ কোটি ডোজ করোনা টিকা সরবরাহের বরাত দিয়ে রেখেছে। অপেক্ষা খালি সবুজ সংকেতের। এর মধ্যে যদিও ৪০ লক্ষ ডোজ টিকা বন্টনও করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দিয়েছে তাদের দুই প্রতিবেশী দেশ কানাডা ও মেক্সিকোকে।

কবে সরবরাহ শুরু হবে?

সোমবার জো বাইডেন জানিয়েছেন, 'আগামী জুন মাসের শেষেই বন্টন প্রক্রিয়া শুরু হবে।' তবে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চাহিদা মিটতেই এটি করা হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। তিনি বলেছেন, 'যখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সকলকে দেওয়ার মতো পর্যায়ে সরবরাহ হয়ে যাবে, তার পরেই অন্য দেশকে দেওয়া হবে।'

কতটা এগিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা টিকাকরণ?

ভারতের তুলনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জনসংখ্যা কম। তাছাড়া পরিকাঠামো উন্নত। ফলে ইতিমধ্যেই সেদেশে ৪৮% মানুষ কোনও না কোনও করোনা টিকার প্রথম বা দুটি ডোজই গ্রহণ করে ফেলেছেন। সচেতনতা থাকলেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও টিকা নিয়ে ভিত মানুষের সংখ্যা কম নয়। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রকাশ্য রাস্তায়, অনেক মার্কিন 'অ্যান্টি-ভ্যাকসিন' বিশ্বাসীরা প্রতিবাদ চালাচ্ছেন।

ইতিমধ্যেই ভারতকে প্রায় ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের করোনা মোকাবিলার সামগ্রী পাঠিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্যে রয়েছে অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, রেমডেসিভিরের মতো প্রাণদায়ী ওষুধ, রাপিড টেস্ট কিট ইত্যাদি। তাছাড়া পিপিই তো রয়েছেই। শুধু তাই নয়, ভারতে করোনা টিকা উত্পাদনে কাঁচামাল সরবরাহেও গতি এনেছে মার্কিন প্রশাসন।

বন্ধ করুন