চিনের বিরুদ্ধে মুদ্রা প্রতারণার অভিযোগ প্রত্যাহার করল আমেরিকা।
চিনের বিরুদ্ধে মুদ্রা প্রতারণার অভিযোগ প্রত্যাহার করল আমেরিকা।

চিনের বিরুদ্ধে মুদ্রা প্রতারণার অভিযোগ প্রত্যাহার আমেরিকার

  • ইউয়ানের দাম কমানোর বিষয়ে আগের অনড় মনোভাব থেকে সরে আসা এবং মুদ্রা বিনিময় বিষয়ক তথ্য প্রকাশে রাজি হওয়ার ফলেই বেজিংয়ের উপর থেকে অর্থনৈতিক অভিযোগ তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হোয়াইট হাউস।

চিনের বিরুদ্ধে মুদ্রা প্রতারণার অভিযোগ প্রত্যাহার করল আমেরিকা। জানা গিয়েছে, ইউয়ানের দাম কমানোর বিষয়ে আগের অনড় মনোভাব থেকে সরে আসা এবং মুদ্রা বিনিময় বিষয়ক তথ্য প্রকাশে রাজি হওয়ার ফলেই বেজিংয়ের উপর থেকে অর্থনৈতিক অভিযোগ তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হোয়াইট হাউস।

আগামী বুধবার হোয়াইট হাউসে চিনের সঙ্গে প্রথম দফার বাণিজ্যিক চুক্তি সই করতে চলেছে ওয়াশিংটন। তার দুই দিন আগে, সোমবার কংগ্রেসে মার্কিন রাজস্ব দফতরের বৈদেশিক লেনদেন বিষয়ক অর্ধবার্ষিকী রিপোর্টে চিনের বিরুদ্ধে অবস্থান প্রত্যাহারের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে।

ওই দিন ওয়াশিংটনে রাজস্ব দফতরের সচিব স্টিভেন মাচিন এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘প্রতিযোগিতামূলক মূল্যহ্রাস নীতি থেকে সরে আসার পাশাপাশি অর্থনৈতিক বিষয়ে স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি দিয়েচে চিন।’

ওয়াশিংটনের এই বিবৃতি প্রকাশের পরেই একলাফে দাম বেড়েছে ইউয়ানের, যা গত ৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। উল্লেখ্য, এর আগে গত অগস্ট মাসে ডলারের পুনর্মূল্যানের জেরে চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক ইউয়ানের দাম পড়রা অনুমোদন দেওয়ায় চিন-আমেরিকা বাণিজ্য সংঘাত গতি পায়।

মার্কিন রাজস্ব দফতরের সাম্প্রতিক রিপোর্টে পিপলস ব্যাঙ্ক অফ চায়না এবং চিনের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় সম্পর্কিত পদক্ষেপ প্রসঙ্গে দেশবাসীকে আরও অবগত করার জন্য চিন সরকারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন