এলিজাবেথ স্নাইডার, করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন। ছবি AFP
এলিজাবেথ স্নাইডার, করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন। ছবি AFP

Coronavirus update: পরাস্ত করোনা, 'ভয় পাবেন না' বার্তা সুস্থ এলিজাবেথের

  • এলিজাবেথের আবেদন, আতঙ্কিত হবেন না। যদি মনে হয় আপনি আক্রান্ত হয়েছেন, তবে ঘরে থাকুন।

বিশ্বজুড়ে এখনও পর্যন্ত ১ লক্ষ ২৮ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত। আর তার জেরে ইতিমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 'হু' সারা বিশ্জবে রুরি অবস্থা জারি করেছে।

প্রতিদিন রোগীর সংখ্যা বেড়ে চলায় বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা আতঙ্ক। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণে একদিকে যেমন নিহতের সংখ্যা বাড়ছে, একই ভাবে করনার জাল থেকে সুস্থ হয়ে ফিরেছেন অনেকেে এমনই একজন আমেরিকার ওয়াশিংটনের সিয়াটেলের বাসিন্দা ৩৭ বছর বয়েসি বায়ো ইঞ্জিনিয়ারিং-এর গবেষক এলিজাবেথ স্নাইডার।

সুস্থ হওয়ার পরে এলিজাবেথের বার্তা একটাই, 'আক্রান্ত হতেই পারেন, তবে আতঙ্কিত হবেন না। যদি মনে হয় আপনি আক্রান্ত হয়েছেন তবে ঘরে থাকুন।' তাঁর এই বার্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অনেক মানুষের মধ্যে নতুন করে বাঁচার উৎসাহ জুগিয়েছে।

এলিজাবেথ জানিয়েছেন, তিনি অসুস্থ অনুভব করার পর থেকেই নিজেকে একটি ঘরে আটকে রাখেন। তিনি নিজেই নিজের চিকিৎসা করেছেন বলে জানিয়েছেন। যদিও তিনি বলেছেন, বয়স্ক ও আগে থেকে কোনও রোগে আক্রান্তদের পক্ষে এমন করা সম্ভব নয়। আর সেই কারণে তাঁদের অতিরিক্ত সেবা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন এলিজাবেথ।

কিছুদিন আগেই আমেরিকার স্বাস্থ্য অধিকর্তার তরফে প্রকাশ করা তথ্যে বলা হয়েছে, চিনের ৮০ শতাংশ আক্রান্তের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে হালকা সমস্যা রয়েছে। পাশাপাশি, বয়স্ক ব্লাড সুগারের রোগী, হৃদযন্ত্রের সমস্যা আছে এমন ৬০ শতাংশ আক্রান্তকে হাসপাতালে রাখতে হয়েছে।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ফ্লু-এর মতো সমস্যা নিয়ে এলিজাবথৎ একটি পার্টিতে যান। তিন দিন পরে জানতে পারেন, তিনি করোনায় আক্রান্ত। সেই পার্টিতে উপস্থিত আরও পাঁচ জন এরপর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

নিজের সমস্যা সম্পর্কে এলিজাবেথ বলেন, তিনি খুব ক্লান্তি অনুভব করা সত্ত্বেও প্রতিদিন নিজের কাজ করে গিয়েছেন। এর কিছু দিন পরই তিনি জ্বরে আক্রান্ত হন। তিনি যে বায়েটেকনোলজি সংস্থায় কাজ করেন, সেই সংস্থার অধিকর্তা তাঁকে বাড়ি ফিরে যেতে বলেন।

বাড়িতে ফিরে শরীরের তাপমাত্রা ১০৩ ডিগ্রি ফারেনহাইট দেখা দিলে নিজেকে এক ঘরে আটকে রাখেন যুবতী। তিনি নিজেই নিজের চিকিৎসা করেন বলে জানিয়েছেন।তাতেই তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়েছেন বলে তাঁর দাবি।

ওয়াশিংটনের সিয়াটেলে এখনও পর্যন্ত মোট ২৬০ জন করোনাযভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এঁদের মধ্যে ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে মার্কিন সরকার সূত্রে জানানো হয়েছে। অন্য দিকে, আমেরিকাজুড়ে মোট ১,১০০ জন COVID-19 রোগে আক্রান্ত হয়েছেন, যাঁদের মধ্যে ৩০ জন মারা গিয়েছেন।

বন্ধ করুন