বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Uttar Pradesh Assembly Election: কৃষক আন্দোলনের প্রভাব পড়বে EVM-এ? অঙ্ক ঝালিয়ে নিতে জাঠ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শাহের
জাঠ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

Uttar Pradesh Assembly Election: কৃষক আন্দোলনের প্রভাব পড়বে EVM-এ? অঙ্ক ঝালিয়ে নিতে জাঠ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শাহের

  • কৃষক আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের জাঠ সম্প্রদায়ের একটি বড় অংশ। এই জাঠদের ভোট এবার বিজেপির হাতছাড়া হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিগত প্রায় এক বছর ধরে তলা কৃষক আন্দোলনের আঁচ চকি গিয়ে পড়বে উত্তরপ্রদেশের ভোট বাক্সে? এখন এই চিন্তাতেই যেন ঘুম উড়েছে বিজেপি নেতাদের। বিতর্কিত কৃষি আইন নিয়ে চলতে থাকা দীর্ঘদিনের আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের জাঠ সম্প্রদায়ের একটি বড় অংশ। এই জাঠদের ভোট এবার বিজেপির হাতছাড়া হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আর সেরমটা হলে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশে জমি ধরে রাখা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়বে গেরুয়া শিবিরের পক্ষে। এই পরিস্থিতিতে জাঠদের মান ভাঙিয়ে অঙ্ক ঝালিয়ে নিতে ময়দানে নামলেন খোদ অমিত শাহ।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বুধবার জাঠ সম্প্রদায়ের প্রধান নেতাদের সাথে দেখা করেন এবং আসন্ন উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টিকে সমর্থন করার আহ্বান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচন, ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচন এবং ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে ধারাবাহিক ভাবে জাঠেদের একটি বড় অংশের সমর্থন পেয়ে এসেছে বিজেপি। তবে গত একবছরে আমূল পরিবর্তন হয়েছে পরিস্থিতির। কৃষি আইনকে কেন্দ্র করে বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়েছে জাঠ সম্প্রদায়। কৃষি আইন প্রত্যাহার করা হলেও কৃষকদের ক্ষতে প্রলেপ লাগতে সময় লাগবে বলে মত বিশ্লেষকদের। এই আবহে দূরত্ব মেটাতে জাঠ নেতাজের সঙ্গে আলোচনা করলেন বিজেপির চাণক্য।

দিল্লিতে বিজেপির সংসদ সদস্য পারবেশ সাহেব সিং ভর্মার বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয় জাঠ নেতাদের এই বৈঠক। সেই বৈঠকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সঞ্জীব বালিয়ান, আইন প্রণেতা সত্যপাল সিং এবং প্রায় ২০০ জন জাঠ নেতা উপস্থিত ছিলেন। উত্তরপ্রদেশের পশ্চিমাঞ্চলে জাঠদের সমর্থনকে প্রধান হাতিয়ার হিসেবে দেখা হয়। পশ্চিমে অখিলেশের গড় ভাঙতে সেই সমর্থন বিজেপির কাছে অত্যাবশ্যক।

জানা গিয়েছে, বৈঠকে শাহ কৃষি সমস্যা এবং জাতীয়তাবাদকে দল এবং সম্প্রদায়ের মধ্যে সংযোগ স্থাপনের জন্য ব্যবহার করেছেন। এদিকে তিনি এও জানান যে জয়ন্ত চৌধুরীর রাষ্রীব্য় লোক দলের জন্য বিজেপির দরজা সব সময় খোলা। নির্বাচনের পরেও যদি আরএলডি ফিরতে চায়, সেই রাস্তাও খোলা। উল্লেখ্য, আসন্ন নির্বাচনের জন্য জয়ন্ত চৌধুরী পদ্ম ছেড়ে সাইকেল বাহিনীর সঙ্গে জোট গড়ার সিদ্ধান্ত নেন। জাঠদের মধ্যে আরএলডির প্রভাব বিস্তর। আর তাই অখিলেশের দলের সঙ্গে আরএলডি-র জোট বেশ চিন্তায় ফেলেছে বিজেপিকে। আর তাই এবার সরাসরি জাঠ সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বললেন অমিত শাহ।

 

বন্ধ করুন