বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Toilet: বই নয়, ছাত্রীদের হাতে ঝাঁটা, টয়লেট পরিষ্কারে বাধ্য করা হল তাদের
শৌচাগার পরিষ্কারে বাধ্য করা হল ছাত্রীদের। লাইভ হিন্দুস্তান।

Toilet: বই নয়, ছাত্রীদের হাতে ঝাঁটা, টয়লেট পরিষ্কারে বাধ্য করা হল তাদের

  • ওই ছাত্রীদের অভিভাবকরাও ক্ষোভে ফুঁসছেন। তাঁদের অভিযোগ, স্কুল কর্তৃপক্ষ মাঝেমধ্যেই এই কাজ করায়। স্কুলে কোনও পিওন নেই। স্কুলের ছাত্রীদের দিয়েই নোংরা টয়লেট পরিষ্কারে বাধ্য করা হয়। এসব বন্ধ হওয়া দরকার।

মধ্যপ্রদেশের একটি স্কুলের ছবি শোরগোল ফেলে দিয়েছে নেটপাড়ায়। আবার যে জায়গার ছবি সেটি, সেখান থেকে নির্বাচিত হন পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতেরর মন্ত্রী মহেন্দ্র সিং শিশোদিয়া।  সেই চকদেবপুর গ্রামের একটি স্কুলে দেখা যাচ্ছে ছাত্রীরা সেই স্কুলের শৌচাগার পরিষ্কার করছে। গ্রামের প্রাইমারি সেকেন্ডারি স্কুলে টয়লেট পরিষ্কারের ছবি দেখা যাচ্ছে। ঝাঁটা হাতে শৌচাগার পরিষ্কার করছে তারা। সেই ছবিই ভাইরাল হয়েছে সোশ্য়াল মিডিয়ায়।

এদিকে ছবিতে যে ছাত্রীদের শৌচাগার পরিষ্কার করতে দেখা যাচ্ছে তারা ষষ্ঠ ও পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। তবে প্রশ্ন উঠছে যাদের হাতে বই থাকার কথা ছিল তাদের হাতেই ঝাঁটা তুলে দিয়েছে স্কুল। একে তো নারী শিক্ষার হাল নিয়ে নানা প্রশ্ন ওঠে। তারওপর এভাবে ঝাঁটা হাতে ছাত্রীদের টয়লেট পরিষ্কার করানো কতটা যুক্তিসংগত তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।

স্কুলের প্রধানশিক্ষিকা ইন্দিরা রঘুবংশী বলেন, আমি স্কুলে ছিলাম না। মিটিংয়ে গিয়েছিলাম। তখনই ছাত্রীরা টয়লেট পরিষ্কার করেছে। এব্যাপারে তদন্ত চলছে।

এদিকে জেলা প্রশাসনের নজরে এসেছে বিষয়টি। অবিলম্বে এনিয়ে খতিয়ে দেখে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ওই ছাত্রীদের অভিভাবকরাও ক্ষোভে ফুঁসছেন। তাঁদের অভিযোগ, স্কুল কর্তৃপক্ষ মাঝেমধ্যেই এই কাজ করায়। স্কুলে কোনও পিওন নেই। স্কুলের ছাত্রীদের দিয়েই নোংরা টয়লেট পরিষ্কারে বাধ্য করা হয়। এসব বন্ধ হওয়া দরকার।

এদিকে এর আগে উত্তরপ্রদেশের একটি স্কুলেও জোর করে স্কুলের পড়ুয়াদের শৌচাগার পরিষ্কার করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। এনিয়েও শোরগোল পড়ে গিয়েছিল নেট দুনিয়ায়।

 

বন্ধ করুন