অর্থ সাহায্য না পেলে ভারতে তাদের ব্যবসা বন্ধ করার কথা ভাবছে ভোডাফোন আইডিয়া।
অর্থ সাহায্য না পেলে ভারতে তাদের ব্যবসা বন্ধ করার কথা ভাবছে ভোডাফোন আইডিয়া।

ভবিষ্যত্ অনিশ্চিত, ঋণ শুধতে ৫৩,০০০ কোটি দেবে ভোডাফোন

  • স্পেকট্রাম ঋণ বাবদ ২৪,৭২৯ কোটি টাকা এবং লাইসেন্স ফি বাবদ ২৮,৩০৯ কোটি টাকার সুবাদে প্রায় ৫৩,০৩৮ কোটি টাকা দিতে হবে ভোডাফোন আইডিয়া লিমিটেড সংস্থাকে।

মোট বকেয়া ঋণ বাবদ অর্থ মিটিয়ে দেওয়ার উদ্দেশে উদ্যোগী হল ঋণে জর্জরিত টেলিকম অপারেটর সংস্থা ভোডাফোন আইডিয়া। শনিবার সংস্থার তরফে এই খবর জানানো হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে ঋণ শোধ করার চেষ্টার পাশাপাশি নিজেদের ব্যবসার ভবিষ্যত্ সম্পর্কেও সন্দেহ প্রকাশ করেছে ভোডাফোন আইডিয়া। সংস্থার দাবি, সাপ্লিমেন্টারি অর্ডার সংস্কারের লক্ষ্যে তাদের জমা দেওয়া আবেদনের পক্ষে শীর্ষ আদালত রায় দেবে কি না, তার উপরেই নির্ভর করছে ভারতে তাদের ব্যবসার নিশ্চয়তা।

বিএসই ফাইলিংয়ে প্রকাশিত বিবৃতিতে ভোডাফোন আইডিয়া জানিয়েছে, ‘২০১৯ সালের ২৪ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া রায় মেনে AGR-এর উপর ভিত্তি করে গণনা করা টেলিকম দফতরের প্রাপ্য ঋণ পরিশোধের অর্থের সংস্থান করার চেষ্টা করছে সংস্থা। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ওই অর্থ পরিশোধ করতে পারা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।’

স্পেকট্রাম ঋণ বাবদ ২৪,৭২৯ কোটি টাকা এবং লাইসেন্স ফি বাবদ ২৮,৩০৯ কোটি টাকার সুবাদে প্রায় ৫৩,০৩৮ কোটি টাকা দিতে হবে ভোডাফোন আইডিয়া লিমিটেড সংস্থাকে। অর্থ সাহায্য না পাওয়া গেলে ঝাঁপ ফেলে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছে সংস্থা।

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ‘২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হওয়া ত্রৈমাসিক অনুযায়ী, সংস্থা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নির্ভর করছে সুপ্রিম কোর্টে জমা দেওয়া সাপ্লিমেন্টারি অর্ডার সংস্কারের আবেদনের রায়ের উপরে।’

ওই আবেদনের পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে আগামী ১৭ মার্চ।

বন্ধ করুন