বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাইডেনকে ‘উষ্ণতম অভ্যর্থনা’, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নয়া উচ্চতায় পৌঁছানোর আশা মোদীর
নরেন্দ্র মোদী এবং জো বাইডেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)
নরেন্দ্র মোদী এবং জো বাইডেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)

বাইডেনকে ‘উষ্ণতম অভ্যর্থনা’, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নয়া উচ্চতায় পৌঁছানোর আশা মোদীর

  • ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে সেই ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ সম্পর্ক আরও জোরদার করার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর ‘বন্ধুত্ব’ নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। ‘বন্ধু রাষ্ট্র’ হয়ে ওঠে ভারত এবং আমেরিকা। নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আমলেও ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে সেই ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ সম্পর্ক আরও জোরদার করার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বাইডেনকে ‘উষ্ণতম অভ্যর্থনা’-ও জানালেন তিনি।

চার বছরের ট্রাম্প-শাসনের অবসান ঘটিয়ে বুধবার ৪৬ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথগ্রহণ করেন বাইডেন। কিছুক্ষণ পরেই মোদীর টুইটারের দেওয়াল থেকে বাইডেনের উদ্দেশে একাধিক টুইট ভেসে ওঠে। মোদী লেখেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্বভার গ্রহণের জন্য জো বাইডেনকে উষ্ণতম অভ্যর্থনা। ভারত-আমেরিকার কৌশলগত সম্পর্ককে মজবুত করতে তাঁর সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘সাফল্যের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে নেতৃত্ব প্রদানের জন্য শুভকামনা করছি। একই বিষয়গুলির মোকাবিলা এবং বিশ্বব্যাপী শান্তি ও সুরক্ষা আরও নিশ্চিত করার বিষয়ে ঐক্যবদ্ধ এবং প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আমরা।’

গত চার বছরে ইন্দো-মার্কিন সম্পর্কের অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে বলে নয়াদিল্লির তরফে একাধিকবার দাবি করা হয়েছিল। ‘হাউডি মোদী’-তে যোগ দিয়েছিলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। সেখানে তো রীতিমতো ‘অব কি বার ট্রাম্প সরকার’ স্লোগান তুলেছিলেন মোদী। গত বছর ‘নমস্তে ট্রাম্প’-এ যোগ দিয়েছিলেন ট্রাম্প। সেই রেশ ধরেই বাইডেনের আমলে ইন্দো-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নয়া উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার আশাপ্রকাশ করেন মোদী। তিনি লেখেন, ‘যৌথ মূল্যবোধের উপর নির্ভর করে আছেন ভারত-মার্কিন সম্পর্ক। দু'দেশের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ, বহুমুখী দ্বিপাক্ষিক কর্মসূচি, ক্রমবর্ধমান আর্থিক যোগাযোগ এবং মানুষের মধ্যে প্রাণবন্ত যোগ আছে। ভারত-মার্কিন সম্পর্ককে আরও উঁচুতে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে কাজ করতে বদ্ধপরিকর।’

বন্ধ করুন