বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিয়ের শোভাযাত্রায় হাত পা ছুঁড়ে নাচছিল দুই যুবক, প্রতিবাদ করতেই কনের মাকে খুন!
ওড়িশার বিয়ের শোভাযাত্রায় খুন। প্রতীকী ছবি
ওড়িশার বিয়ের শোভাযাত্রায় খুন। প্রতীকী ছবি

বিয়ের শোভাযাত্রায় হাত পা ছুঁড়ে নাচছিল দুই যুবক, প্রতিবাদ করতেই কনের মাকে খুন!

  • ধারালো অস্ত্র নিয়ে তারা কনের মায়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। পদ্মপুরের এসডিপিও ভবানী ভুঁই বলেন, কনের মা মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন। এরপর তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

 বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ভয়াবহ ঘটনা। বিয়ের শোভাযাত্রাকে কেন্দ্র করে অশান্তি। আর তার জেরে কনের ৫০ বছরের মাকে খুন করার অভিযোগ। বিয়ের শোভাযাত্রায় নাচ করাকে কেন্দ্র করেই অশান্তির সূত্রপাত। ওড়িশার বারগড় জেলার ঘটনা। ঠিক কী হয়েছিল ঘটনা?

পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার রাতে বরের বাড়ির লোকজন সালেপালি গ্রামে যান। এদিকে দুজন গ্রামবাসীও সেই শোভাযাত্রায় অংশ নেন। এদিকে সুমন্ত নায়েক ও সুবোধ রাজহংস নামে দুজন গ্রামবাসী ওই শোভাযাত্রায় ঢুকে উদ্দাম নাচতে শুরু করে। এমনকী নানাভাবে তারা ঝামেলা পাকানোও শুরু করে।  এনিয়ে কনের মা কিশোরী রাজহংস তাদের বারণ করে। আর তারপরই খেলা ঘুরে যায়। কনের মার আপত্তি শুনে রাগ একেবারে মাথায় উঠে যায় তাদের। এরপরই ধারালো অস্ত্র নিয়ে তারা কনের মায়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। পদ্মপুরের এসডিপিও ভবানী ভুঁই বলেন, কনের মা মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন। এরপর তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

এদিকে বিয়ের আনন্দ মুহূর্তে শোকে পরিণত হয়ে। গোটা ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। পুলিশ জানিয়েছে, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের খোঁজে ব্যাপক তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

 

বন্ধ করুন