বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হিংসা রুখতে কী পদক্ষেপ ত্রিপুরা সরকারের? দ্রুত জানানোর নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

হিংসা রুখতে কী পদক্ষেপ ত্রিপুরা সরকারের? দ্রুত জানানোর নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

এর আগেও সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, পুরভোট সুষ্ঠুভাবে করতে হবে। সব রাজনৈতিক দল যেন সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রচারে অংশ নিতে পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে।

‌ত্রিপুরায় পুরনির্বাচনকে কেন্দ্র করে কীরকম নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে বিপ্লব দেব সরকার, তা জানানোর নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবারের মধ্যেই তা জানাতে হবে। শীর্ষ আদালতে তৃণমূলের করা মামলার প্রেক্ষিতেই এই নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত। পৌনে ৪টের সময় মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে।

এদিন বিচারপতি জানতে চান, নির্বাচনে নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য কত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রয়েছে? তাদের কোন কোন এলাকায় ব্যবহার করা হচ্ছে। ত্রিপুরার ডিজি ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। এদিন তৃণমূলের তরফে আইনজীবী আদালতকে জানান, ‘‌রাজনৈতিক কর্মী ও তাঁদের বাড়ির মহিলা, শিশুদের বাড়ি থেকে বের করে এনে মারা হচ্ছে। সেখানে কীভাবে মানুষ ভোট দিতে বেরোবেন?‌ ১৭টি হিংসার ঘটনা ঘটেছে। কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।’‌ এরপরই বিচারপতি ত্রিপুরায় নির্বাচনের দিন থেকে শুরু করে ফল প্রকাশ পর্যন্ত কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আয়োজন করা হয়েছে, সে বিষয়ে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

আগামী বৃহস্পতিবার ত্রিপুরায় পুরভোট রয়েছে। গত কয়েকদিন ধরেই ত্রিপুরায় পুরনির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক পরিস্থিতি। এর আগেও সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, পুরভোট সুষ্ঠুভাবে করতে হবে। সব রাজনৈতিক দল যেন সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রচারে অংশ নিতে পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে। সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও বাতিল করা হয়েছে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রা। তৃণমূলের নেতা–কর্মীদের উপর একের পর এক হামলার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। ত্রিপুরায় এই অশান্তির আবহের মধ্যেই ফের শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে তৃণমূল।

বন্ধ করুন