বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > SMS দেখালেই পেমেন্ট, ‘ই-রুপি’ চালু করলেন প্রধানমন্ত্রী, কীভাবে ব্যবহার করবেন?
ভাউচারগুলি অনেকটা ই-গিফট কার্ডের মতো। অর্থাত্ প্রিপেইড। এসএমএস-এর মাধ্যমে কার্ডের কোড শেয়ার করা যাবে। অথবা QR কোড শেয়ার করা যাবে। ফাইল ছবি : টুইটার  (Twitter)

SMS দেখালেই পেমেন্ট, ‘ই-রুপি’ চালু করলেন প্রধানমন্ত্রী, কীভাবে ব্যবহার করবেন?

ন্যাশনাল পেমেন্টস কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া, আর্থিক পরিষেবা দফতর, স্বাস্থ্য মন্ত্রক এবং জাতীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় এই সিস্টেমটি তৈরি করা হয়েছে।

সোমবার এক নতুন ক্যাশলেস পেমেন্ট সিস্টেম 'ই-রুপি'-র (e-RUPI) সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নয়া সিস্টেমটি ইউপিআই ভিত্তিক ই-ভাউচারের মাধ্যমে কাজ করবে। ন্যাশনাল পেমেন্টস কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া, আর্থিক পরিষেবা দফতর, স্বাস্থ্য মন্ত্রক এবং জাতীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় এই সিস্টেমটি তৈরি করা হয়েছে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন ই-রুপি ভাউচার?

এই ভাউচারগুলি অনেকটা ই-গিফট কার্ডের মতো। অর্থাত্ প্রিপেইড। এসএমএস-এর মাধ্যমে কার্ডের কোড শেয়ার করা যাবে। অথবা QR কোড শেয়ার করা যাবে।

প্রতিটি ই-রুপি ভাউচার সেটি যে কাজের উদ্দেশ্যে ইস্যু করা, সেটি করতেই ব্যবহার করা যাবে। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের জন্য একটি ই-রুপি ভাউচার থাকে, তাহলে এটি শুধুমাত্র ভ্যাকসিনের জন্যই ব্যবহার করতে পারবেন। অন্য কোথাও খরচ করা যাবে না।

তাছাড়া এটি ব্যক্তি-নির্দিষ্টও। অর্থাত্ যাঁকে দেওয়া হচ্ছে, শুধুমাত্র তিনিই এটি ব্যবহার করতে পারবেন।

অন্যান্য অনলাইন পেমেন্টের সঙ্গে ই-রুপি ভাউচারের পার্থক্য কী?

ই-রুপি কোনও প্ল্যাটফর্ম নয়। এটি নির্দিষ্ট পরিষেবার জন্য একটি ভাউচার। এমনকী যদি কারও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বা ডিজিটাল পেমেন্ট অ্যাপ, স্মার্টফোনও না থাকে, তাহলেও এই ভাউচার ব্যবহার করতে পারবেন। একটা SMS-ই যথেষ্ট। এটাই পার্থক্য।

এই ভাউচারগুলি স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত লেনদেনের উদ্দেশ্যেই তৈরি। কোনও সংস্থা তাদের কর্মচারীদের জন্য এই ভাউচার ইস্যু করতে পারে। বেসরকারি হাসপাতাল থেকে কিনে কর্মচারীদের এই ভাউচার পাঠিয়ে দিলেই হল। তাঁরা হাসপাতালে গিয়ে এটা জমা করলেই পেয়ে যাবেন টিকা। এ বিষয়ে আগেই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিল কেন্দ্র। এবার তা বাস্তবায়িত হল।

কোন কোন ব্যাঙ্কে ই-রুপি চালু হয়েছে?

ন্যাশনাল হেলথ অথরিটি জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই আটটি ব্যাঙ্কে ই-রুপি লাইভ হয়ে গিয়েছে। সেগুলি হল স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, এইচডিএফসি, অ্যাক্সিস, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক, ব্যাঙ্ক অব বরোদা, কানারা ব্যাঙ্ক, ইন্দাসলন্ড ব্যাঙ্ক, আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক।

বন্ধ করুন