ফাইল ছবি (REUTERS)
ফাইল ছবি (REUTERS)

WhatsApp-এ রয়েছে লুকানো নানা ফিচার, অ্যাক্টিভেট করে চমকে দিন বন্ধুদের

  • ফিচারের ভিড়ে হারিয়ে যায় কিছু দরকারি জিনিস। সেগুলোই খুঁজলাম আমরা। দেখে নিন তালিকা

হাতে হাতে স্মার্টফোন। আর স্মার্টফোন মানেই হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাটে মশগুল আট থেকে আশি। WhatsApp এসে যেন বদলে দিয়েছে গোটা দুনিয়া। টেক্সট মেসেজ হোক বা ছবি – ভিডিয়ো, হোয়াটসঅ্যাপে মুহূর্তে পৌঁছে যায় নির্দিষ্ট ঠিকানায়। সহজেই লগ ইনের সুবিধা থাকায় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন যে কেউ। একবার ওটিপি দিয়ে চালু করে দিলে থামানো মুশকিল ৮০ বছরের বৃদ্ধকেও। এভাবেই বিশ্বজুড়ে প্রায় ১৫০ মানুষের কাছে ছড়িয়ে পড়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। ব্যক্তিগত পরিসরে তো বটেই, এমনকী পেশাদাররাও ব্যবহার করছেন হোয়াটসঅ্যাপ।

আর ব্যবহারকারীদের নতুন নতুন ফিচার দিতে দিন-রাত এক করে কাজ করেন হোয়াটসঅ্যাপের কর্মীরা। এতে সুবিধা যেমন হয়, তেমন রয়েছে অসুবিধাও। ফিচারের ভিড়ে হারিয়ে যায় কিছু দরকারি জিনিস।

হোয়াটসঅ্যাপের তেমনই কিছু দরকারি ফিচারের তালিকা তৈরি করেছি আমরা। যা আপনার হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকে আরও কিছুটা ঝঞ্ঝাটমুক্ত করবে।

১. টাইপরাইটার ফন্ট

হোয়াসঅ্যাপে বোল্ড, ইটালিক বা স্ট্রাইকথ্রু ফন্টের মতো টাইপরাইটার ফন্টও ব্যবহার করা সম্ভব। এই ফন্ট ব্যবহার করে গ্রুপ চ্যাটে নিজের আলাদা পরিচয় তৈরি করতে পারেন আপনি। টাইপরাইটার ফন্ট ব্যবহার করার জন্য আপনার টেক্সটের আগে ও পরে তিন বার ` চিহ্নটি ব্যবহার করুন। যে কোনও অ্যান্ডরয়েড বা আইওএস ফোনে ব্যবহার করা যেতে পারে এই ফন্ট।

২. পিন চ্যাট

বেশ কিছু ক্ষেত্রে মেসেজের ভিড়ে হোয়াটসঅ্যাপে দরকারি চ্যাট খুঁজে পাওয়া মুশকিল হয়ে পড়ে। সার্চ করে খুঁজে বার করতে হয় চ্যাট। সেই ঝঞ্ঝাট থেকে মুক্তি দিতে সম্প্রতি পিন চ্যাট ফিচার লঞ্চ করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। এই ফিচার ব্যবহার করে আপনি হোয়াটসঅ্যাপে সবার উপরে পিন করে রাখতে পারেন আপনার দরকারি চ্যাট। এর ফলে নতুন মেসেজ আসুক বা না আসুক সবার ওপরে থাকবে আপনার দরকারি চ্যাট।

এই ফিচার অ্যাক্টিভেট করতে যে চ্যাটহেডটি সবার ওপরে পিন করতে চান সেটি লং প্রেস করুন। এর পর ট্যাপ করুন পিন আইকনে। আইফোন ব্যবহারকারীরা রাইট সোয়াইপ করে ফিচারটি অ্যাক্টিভেট করতে পারেন।

৩. বুকমার্ক মেসেজ

হোয়াটসঅ্যাপে আপনি বুকমার্ক করে রাখতে পারেন দরকারি মেসেজ। এই মেসেজ পরে আর খুঁজতে হবে না আপনাকে। হোয়াটসঅ্যাপে ফিচারটির নাম স্টারড মেসেজ। কোনও মেসেজকে স্টারড করতে হলে সেটিকে লং প্রেস করুন। এর পর পপ আপ মেনুতে দেখতে পাবেন ‘স্টার’। ট্যাপ করুন। স্টারড মেসেজ ফোল্ডারে দেখতে পাবেন এই মেসেজ।

৪. আপনার জোড়িদার কে? বলে দেবে হোয়াটসঅ্যাপ

এত মানুষের সঙ্গে চ্যাটে মশগুল থাকলেও আপনার জোড়িদারটি কে তা কিন্তু জানে হোয়াটসঅ্যাপ। একটু চেষ্টা করলে তা জেনে নিতে পারবেন আপনি। কোন কনট্যাক্টের সঙ্গে চ্যাট করতে আপনি কত ডেটা ব্যবহার করছেন তার ওপর নজর রাখে হোয়াটসঅ্যাপ। সেই তথ্য ব্যবহার করেই বোঝা যেতে পারে আপনি সব থেকে বেশি চ্যাট করেছেন কার সঙ্গে।

এই গোপন তথ্য জানতে আপনাকে প্রথমে যেতে হবে ‘সেটিংস’-এ। সেখান থেকে ‘ডেটা অ্যান্ড স্টোরেজ ইউজেস’-এ। এর পর ট্যাপ করুন ‘স্টোরেজ ইউসেজ’-এ। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করলেই আপনার মোবাইল ফোনের স্ক্রিনে ফুটে উঠবে নামের তালিকা।

৫. বন্ধ করুন অযাচিত ফটো ও ভিডিয়ো ডাউনলোড

হোয়াটসঅ্যাপে আসা ছবি ও ভিডিয়োয় কি আপনার ফোন মেমরি রোজ ভরে যাচ্ছে? এরও দাওয়াই রয়েছে হোয়াটঅ্যাপের কাছে। চলে যান ‘সেটিংস’-এ। সেখানে দেখতে পাবেন ‘চ্যাটস’ বলে একটি অপশন। তাতে ট্যাপ করলে দেখতে পাবেন ‘টার্ন অফ সেভ ইনকামিং মিডিয়া’।

এই ফিচার চালু করলে হোয়াটসঅ্যাপে আসা প্রতিটি ছবি বা ভিডিয়ো আপনি আলাদা করে ডাউনলোড করতে পারবেন। কোনও ছবি বা ভিডিয়ো অপ্রয়োজনীয় মনে হলে ডাউনলোড না-ও করতে পারেন আপনি। এর ফলে বাঁচবে ডেটা ও স্টোরেজ।


বন্ধ করুন