বাড়ি > ঘরে বাইরে > রাশিয়ার ভ্যাক্সিনে আস্থা নেই, WHO-এর মতে করোনা নিকেশ অসম্ভব
করোনাভাইরাস নিশ্চিহ্ন করার কোনও ‘রুপোর বুলেট’ বা মারণাস্ত্র কোনও দিন পাওয়া যাবে কি না, তাই নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে WHO। 
করোনাভাইরাস নিশ্চিহ্ন করার কোনও ‘রুপোর বুলেট’ বা মারণাস্ত্র কোনও দিন পাওয়া যাবে কি না, তাই নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে WHO। 

রাশিয়ার ভ্যাক্সিনে আস্থা নেই, WHO-এর মতে করোনা নিকেশ অসম্ভব

  • WHO-এর দাবি, অতিমারী নিকেশ করার ওষুধ হয়তো কোনওদিনই আবিষ্কার হবে না।

রাশিয়ার কোভিড ভ্যাক্সিন তৈরির ঘোষণা বিশ্বাসযোগ্য নয়, এমনই ইঙ্গিত করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। সংস্থার দাবি, অতিমারী নিকেশ করার ওষুধ হয়তো কোনওদিনই আবিষ্কার করা যাবে না। 

বিশ্বজুড়ে Covid-19 আক্রমণের শিকার হয়েছেন এখনও পর্যন্ত ১৮,১৪,০০০ এর বেশি মানুষ। তাঁদের মধ্যে ইতিমধ্যে মৃত ৬,৮৮,০৮০ এর বেশি, জানিয়েছে সংবাদসংস্থার রয়টার্স-এর দেওয়া হিসেব। এই অবস্থায় করোনাভাইরাস নিশ্চিহ্ন করার কোনও ‘রুপোর বুলেট’ বা মারণাস্ত্র কোনও দিন পাওয়া যাবে কি না, তাই নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে WHO। সেই কারণেই সারাবিশ্বে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে আসতে দীর্ঘ সময় লাগবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে সংস্থা। 

আরও পড়ুন: রাশিয়ায় মানবদেহে কোভিড ভ্যাক্সিন পরীক্ষায় সাড়া, সেপ্টেম্বর থেকে তৈরি হবে টিকা

সংক্রমণে লাগাম দিতে বিভিন্ন দেশের প্রশাসনের উদ্দেশে কড়া হাতে মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, হাত ধোয়া ও নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার মতো স্বাস্থ্য নিরাপত্তাবিধি মেনে চলার আবেদন জানিয়েছেন WHO ডিরেক্টর জেনারেল তেদ্রোস আধানোম ঘেব্রেইয়েসাস এবং সংস্থার আপৎকালীন বিভাগের প্রধান মাইক রায়ান।

জেনিভার প্রধান দফতর থেকে WHO ডিরেক্টর জেনারেল ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, ‘বিশ্বজুড়ে বেশ কয়েকটি ভ্যাক্সিন বর্তমানে তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে রয়েছে এবং আমরা আশা করছি যে, একাধিক ভ্যাক্সিনের সন্ধান পাওয়া যাবে যা মানুষকে সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করবে। তবে এই মুহূর্তে আমাদের কাছে কোনও রুপোর বুলেট নেই- এবং তা কখনই পাওয়া যাবে বলে মনে হয় না।’

এর কয়েক ঘণ্টা আগেই রাশিয়ার সংবাদসংস্থা তাস জানায় যে, রাশিয়ার বারডেঙ্কো হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবীদের দেহে গামালেয়া ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার অফ এপিডেমোলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজির আবিষ্কৃত ভ্যাক্সিন প্রয়োগ করার পরে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে উল্লেখযোগ্য প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠতে দেখা গিয়েছে। সেই সঙ্গে ভ্যাক্সিনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা যায়নি। একই কথা স্বীকার করে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রকও।

 

বন্ধ করুন