বাড়ি > ঘরে বাইরে > পুনের ঝাঁ-চকচকে অফিসে কোভিড হাসপাতাল তৈরি করল আজিম প্রেমজির উইপ্রো
পুনেতে নিজেদের অফিসকে ৪৫০ শয্যাবিশিষ্ট Covid-19 হাসপাতালে রূপান্তর করল উইপ্রো।
পুনেতে নিজেদের অফিসকে ৪৫০ শয্যাবিশিষ্ট Covid-19 হাসপাতালে রূপান্তর করল উইপ্রো।

পুনের ঝাঁ-চকচকে অফিসে কোভিড হাসপাতাল তৈরি করল আজিম প্রেমজির উইপ্রো

  • বৃহস্পতিবার অনলাইন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হাসপাতালটির উদ্বোধন করেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মহারাষ্ট্র সরকারকে সাহায্য করতে পুনেতে নিজেদের অফিসকে ৪৫০ শয্যাবিশিষ্ট Covid-19 হাসপাতালে রূপান্তর করল ভারতের আইটি সম্রাট আজিম প্রেমজির সংস্থা উইপ্রো লিমিটেড।

মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে মউ চুক্তি সই করার একমাসের মধ্যে এই প্রকল্পের কাজ সম্পূর্ণ করেছে উইপ্রো। গত বৃহস্পতিবার অনলাইন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হাসপাতালটির উদ্বোধন করেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। সেই খবর টুইটারে প্রকাশ করা হয় মুখ্যমন্ত্রীর দফতরের তরফে।

রাজ্য সরকারকে সাহায্য করার সুযোগ দেওয়া এবং হাসপাতাল উদ্বোধনের জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে পালটা টুইট করেন উইপ্রো-র চেয়ারম্যান রিশাদ প্রেমজি।  

মে মাসের প্রথম সপ্তাহে মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে মউ সাক্ষর করে উইপ্রো। চুক্তি অনুযায়ী, পুনেতে সংস্থার অফিসভবনকে বিশেষ কোভিড হাসপাতালে রূপান্তর করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ঠিক হয়, ৪৫০ শয্যার হাসপাতালটি মূলত মাঝামাঝি পরিমাণে উপসর্গ দেখা দিয়েছে এমন রোগীদের জন্য নির্দিষ্ট হবে, যাঁদের শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি দেখা দিলে তাঁদের পরবর্তী পর্যায়ের চিকিৎসার জন্য এখান থেকেই বিশেষজ্ঞ হাসপাতালে পাঠানো হবে। হাসপাতালে রয়েছে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ২৪টি ঘর।

হাসপাতালের শারীরিক পরিকাঠামো, মেডিক্যাল আসবাব ও সরঞ্জাম ছাড়াও একজন পরিচালক এবং হাসপাতাল চালানোর জন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের সাহায্য করতে প্রয়োজনীয় সাপোর্ট স্টাফ সরবরাহ করবে উইপ্রো। 

রিশাদ প্রেমজি জানিয়েছেন, ‘অতিমারী মোকাবিলায় দেশের পাশে দাঁড়াতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং আমরা বিশ্বাস করি সংকট মোকাবিলায় সবাই একসঙ্গে কাজ করা দরকার। Covid-19 এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা মহারাষ্ট্র সরকারের পাশে অটল ভাবে আছি।’

সংস্থার অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব 
ঠাকরে বলেন, ‘উইপ্রো-র এই মানবিক অবদান আমাদের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোকে আরও মজবুত করবে এবং অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামনের সারিতে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীদের উপকার করবে।’

প্রসঙ্গত, গত এপ্রিল মাসে করোনা নোকাবিলা স্বাস্থ্য ও মানবিক সংকট মোকাবিলায় ১,১২৫ কোটি টাকা সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয় উইপ্রো লিমিটেড, উইপ্রো এন্টারপ্রাইসেস লিমিটেড এবং আজিম প্রেমজি ফাউন্ডেশন। ন্দ্রের পি এম কেয়ার ফান্ডের পরিবর্তে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে করোনাযুদ্ধে শামিল স্বাস্থ্যকর্মীদের সাহায্যে এই অর্থসাহায্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে উইপ্রো গ্রুপ।

উল্লেখ্য, গত এপ্রিল মাসে তাঁর আজম ক্যাম্পাসের মধ্যে অবস্থিত মসজিদের ৯,০০০ বর্গফিট এলাকা কোয়ারেন্টাইন সেন্টার গড়ার জন্য দিয়েছেন পুনের স্বনামধন্য উদ্যোগপতি পি এ ইনামদার।

বন্ধ করুন