উদ্বিগ্ন ওড়িশার প্রশাসন
উদ্বিগ্ন ওড়িশার প্রশাসন

ওড়িশায় বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গ থেকে ফেরা করোনা রোগীর সংখ্যা, বর্ডার সিল করছে রাজ্য

পশ্চিমবঙ্গ থেকে ফিরলেই ২৮ দিনের কোয়ারেন্টাইনে যেতে বলছে রাজ্য!

দেবব্রত মোহান্তি

ক্রমশই করোনা হটস্পট হয়ে উঠছে পশ্চিমবঙ্গ। টিম পাঠিয়েছে উদ্বিগ্ন কেন্দ্র। এবার হয়তো তার প্রভাব পড়ছে পড়শি রাজ্য ওড়িশার ওপর। নবীন পট্টনায়েকের রাজ্যে সোমবার যে ১৩জন করোনায় আক্রান্ত ধরা পড়েছেন, তাদের মধ্যে ১০জনই বাংলা ফেরত! পরিস্থিতি এমন বাংলা ফেরতদের কোয়ারেন্টাইন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওড়িশা।

ওড়িশায় মোট আক্রান্ত ৭৪। তার মধ্যে এদিন ১০জনের খোঁজ মিলেছে ভদ্রক ও জাজপুর জেলা থেকে যারা পশ্চিমবঙ্গে গিয়েছিলেন। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছেন যে এরা গত ২৮ দিনের মধ্যে বাংলা থেকে বাড়ি ফিরেছেন। লকডাউন এড়িয়ে মালগাড়ি ইত্যাদি চেপে নিজেদের বাড়ি ফিরেছেন তাঁরা। কিন্তু নিয়ে এসেছেন করোনাভাইরাস।

এর মধ্যে ভদ্রকের পাঁচজন সবাই মধ্যবয়সী। এদের শরীরে করোনার চিহ্ন ছিল না, কিন্তু পরীক্ষায় ধরা পড়েছে। অন্যদিকে জাজপুরে পাঁচজন হাওড়া ও বড়বাজারে কাজ করতেন। তারাও গত কিছুদিনের মধ্যে ফিরেছেন। জাজপুরের কালেক্টর বলেন যে ভদ্রকে একজনকে পাওয়া যায় যার শরীরে করোনা আছে। এরা ওই জাজপুরের পাঁচ ব্যক্তির সঙ্গে ভ্যানে চেপে ফিরেছিলেন।

করোনা নিয়ে রাজ্য সরকারের মুখপাত্র সুব্রত বাগচী জানিয়েছেন যে মোট ৭৪টি কেসের মধ্যে ২৪টি বাংলা থেকে এসেছে। এক বরিষ্ঠ পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন যে তারা বর্ডার সিল করার চেষ্টা করছেন, কিন্তু অনেকেই অ্যাম্বুলেন্সে করে রাজ্যের সীমান্ত পেরিয়ে আসছেন। এরা কজন আসল রোগী, তা বোঝা শক্ত বলে কার্যত মেনেই নেন সেই পুলিশকর্তা। মেদিনীপুরের অনেকে AIIMS Bhubaneswar ও SCB Medical College and Hospital- এ চিকিত্সার জন্ যাচ্ছেন। বাংলা থেকে আসা রোগীর সংখ্যা যে বেড়ে গিয়েছে, তা স্বীকার করেন এক এইমস কর্তা।

আগামিকাল ওড়িশা ডিজিপি বালাসোরে যাবেন বর্ডার সিল করার কাজের তত্ত্বাবধান করতে। কোনও ভাবে ভেতরের রাস্তা দিয়ে গাড়ি, অটো, মিনিূাস ও ট্রাকে করে বাংলা থেকে ওড়িশায় যাচ্ছেন আম আদমি।


বন্ধ করুন