বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > একবছরে তিনবার মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন মা, চতুর্থবারে পুলিশে ফোন নাবালিকার, তারপর…
একবছরে তিনবার মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন মা (ছবিটি প্রতীকী)
একবছরে তিনবার মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন মা (ছবিটি প্রতীকী)

একবছরে তিনবার মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন মা, চতুর্থবারে পুলিশে ফোন নাবালিকার, তারপর…

  • পুলিশ জানিয়েছে, তার মা ও দাদা চতুর্থবারের জন্য তার বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল। সেই বিয়ে আটকানো সম্ভব হয়েছে।

একবার, দুবার, তিনবার। তিন, তিনবার নিজের কিশোরী কন্যাকে বিয়ে দিয়েছিলেন মা। সহায়তা করেছিল মেয়েটির দাদা। অভিযোগ এমনটাই। একবছরের মধ্যে তিন তিনবার বিবাহ। আর চতুর্থবার বিয়ে দেওয়ার তোড়জোড় শুরু করতেই বেঁকে বসল মেয়ে। এভাবে বার বার কেন তার বিয়ে দেওয়া হচ্ছে প্রশ্ন তুলেছিল মেয়ে। এর সঙ্গে শুরু হয় সেই কিশোরীর প্রতিবাদ। মহারাষ্ট্রের জালনা জেলার ঘটনা। 

শুক্রবার পুলিশ ওই কিশোরী কন্যাকে উদ্ধার করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, তার মা ও দাদা চতুর্থবারের জন্য তার বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল। সেই বিয়ে আটকানো সম্ভব হয়েছে। মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, মেয়েটির বয়স ১৭ বছর। অতীতে কার্যত জোর করেই তিনবার মেয়েটির বিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পরেই সে বাড়ি ফিরে আসত। এক বছরের মধ্যে তিনতিন বার মেয়ের বিয়ে দিয়েছিল মা। তৃতীয়বারেও মেয়েটি ফিরে আসে। এরপর চতুর্থবারের জন্য মেয়েটির বিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল মা ও দাদা। এদিকে গোটা বিষয়টি আঁচ করে হেল্প লাইনে ফোন করে মেয়েটি। এরপরই পুলিশ এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। পুলিশ সূত্রে খবর ১২জনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। মেয়েটির মা  ও দাদাকে গ্রেফতার করার চেষ্টা করা হচ্ছে।  

বন্ধ করুন