বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Suicide: ৮ বছর ধরে লিভ ইন, ১৪ বার গর্ভপাতে বাধ্য করেছিলেন পার্টনার, আত্মঘাতী মহিলা
দিল্লিতে আত্মঘাতী মহিলা। (প্রতীকী ছবি)

Suicide: ৮ বছর ধরে লিভ ইন, ১৪ বার গর্ভপাতে বাধ্য করেছিলেন পার্টনার, আত্মঘাতী মহিলা

  • হিন্দিতে লেখা সুইসাইড নোটে ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তিনি এমন এক ব্যক্তির সঙ্গে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন যিনি বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছিলেন। কিন্তু, তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেছিলেন। তাই আত্মহত্যা ছাড়া তার আর কোনও উপায় ছিল না।

দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। ভালোবাসার মানুষটির সঙ্গে লিভ ইন করেছেন আট বছরেরও বেশি সময় ধরে। তারপরেও লিভ ইন পার্টনার তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেছিলেন। ১৪ বার গর্ভপাত করাতে বাধ্য করেছিলেন লিভ ইন পার্টনার। শেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন বছর তেত্রিশের মহিলা। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ-পূর্ব দিল্লির জৈতপুর এলাকায়। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি সুইসাইড নোট।

হিন্দিতে লেখা সুইসাইড নোটে ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তিনি এমন এক ব্যক্তির সঙ্গে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন যিনি বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছিলেন। কিন্তু, তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেছিলেন। তাই আত্মহত্যা ছাড়া তার আর কোনও উপায় ছিল না। পুলিশ জানিয়েছে, ওই মহিলা বিবাহিত ছিলেন। তিনি তার স্বামীর থেকে আলাদা থাকতেন। এই ঘটনায় নয়ডার একটি সফ্টওয়ার ফার্মে কর্মরত ওই লিভ ইন পার্টনারের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশ (দক্ষিণ-পূর্ব) এশা পান্ডে বলেছেন, ‘৫ জুলাই, জৈতপুরে এক মহিলা আত্মহত্যা করেছেন বলে আমরা একটি ফোন পাই। সেখানে গিয়ে ওই মহিলাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই। তাকে এইমস হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’ তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে মহিলার মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, ওই মহিলা গত সাত-আট বছর ধরে স্বামীর কাছ থেকে আলাদা থাকছিলেন। তিনি বিহারের মুজাফফরপুরের বাসিন্দা। সেখানে তার বাবা-মাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পরে মৃতদেহ তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৭৬ (ধর্ষণ) এবং ৩১৩ (মহিলার সম্মতি ছাড়াই গর্ভপাত ঘটানো) ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। সাউথ এক্সটেনশনের একটি প্রাইভেট ফার্মে কর্মরত মহিলার স্বামীকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, তার স্ত্রী প্রায় আট বছর আগে আলাদা হয়েছিলেন। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

বন্ধ করুন