বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > WPI Inflation: পাইকারি বাজারে ‘দাবানল’, এপ্রিলে সর্বকালীন রেকর্ড ছুঁল মূল্যস্ফীতির হার
সরকারি তথ্যে দেখা গিয়েছে, ক্রুড পেট্রলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস, ধাতব জিনিস, কেমিক্যাল, কেমিক্যালজাত পণ্য, খাদ্য সামগ্রীর দাম বেড়েছে গতবছরের তুলনায়। (REUTERS)

WPI Inflation: পাইকারি বাজারে ‘দাবানল’, এপ্রিলে সর্বকালীন রেকর্ড ছুঁল মূল্যস্ফীতির হার

  • WPI Inflation: সরকারি তথ্যে দেখা গিয়েছে, ক্রুড পেট্রলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস, ধাতব জিনিস, কেমিক্যাল, কেমিক্যালজাত পণ্য, খাদ্য সামগ্রীর দাম বেড়েছে গতবছরের তুলনায়।

এপ্রিল মাসে পাইকারি মূল্য-ভিত্তিক মূল্যস্ফীতির হার বেড়ে রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছাল ভারতে। গত মার্চ মাসে পাইকারি মূল্য-ভিত্তিক মূল্যস্ফীতির হার ছিল ১৪.৫৫%। আর এপ্রিল মাসে সেই হার বেড়ে হয়েছে ১৫.০৮%। সরকারি তথ্যে দেখা গিয়েছে, ক্রুড পেট্রলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস, ধাতব জিনিস, কেমিক্যাল, কেমিক্যালজাত পণ্য, খাদ্য সামগ্রীর দাম বেড়েছে গতবছরের তুলনায়। 

জ্বালানী ও খাদ্যদ্রব্যের দাম বেড়ে যাওয়ার কারণেই পাইকারি মূল্যস্ফীতির হার বৃদ্ধি হয়েছে। পাইকারি বাজারে খাদ্যদ্রব্যের দাম বৃদ্ধির হার বেড়ে হয়েছে ৮.৩৫ শতাংশ। শুধুমাত্র এপ্রিল মাসে সবজির দাম বেড়েছে ২৩.২৪ শতাংশ। মার্চ মাসে এই বৃদ্ধির হার ১৯.৮৮ শতাংশ ছিল। আলুর দামে বৃদ্ধির হার হয়েছে ১৯.৮৪ শতাংশ। এদিকে পেঁয়াজের দাম কমেছে ৪.০২ শতাংশ।

এদিকে ফলের দাম গত মাসে ১০.৮৯ শতাংশ বেড়েছে৷ মার্চ মাসে ফলের মূল্য বৃদ্ধির হার ছিল ১০.৬২ শতাংশ৷ তাছাড়া গমের দাম এক মাস আগে ১৪.০৪ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছিল৷ তবে সেই বৃদ্ধির হার কমে ১০.৭০ শতাংশ হয়েছে৷ ডিম, মাংস এবং মাছের দাম এপ্রিলে ৪.৫০ শতাংশে নেমে এসেছে৷ এক মাস আগে এই পণ্যগুলির মূল্য বৃদ্ধির হার ৯.৪২ শতাংশ ছিল৷ খাদ্যশস্য মার্চ মাসে ৮.১২ শতাংশের তুলনায় গত মাসে ৭.৮০ শতাংশ বেড়েছে।

জ্বালানি ও পাওয়ার সেগমেন্ট গত মাসে ৩৮.৬৬ শতাংশ হারে মূল্য বেড়েছে। মার্চ মাসে এই খাতে ৩৪.৫২ শতাংশ মূল্যবৃদ্ধি লক্ষ্য করা গিয়েছিল। পেট্রলের দাম বেড়েছে ৬০.৬৩ শতাংশ, এইচএসডি (হাই-স্পিড ডিজেল) বেড়েছে ৬৬.১৪ শতাংশ এবং এলপিজির দাম বেড়েছে ৩৮.৪৮ শতাংশ। উত্পাদিত পণ্যের সেগমেন্টে মূল্যস্ফীতি বেড়ে এপ্রিল মাসে ১০.৮৫ শতাংশ হয়েছে। আগের মাসে এই হার ছিল ১০.৭১ শতাংশ৷

বন্ধ করুন