বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'প্রতি বছর একই চিত্রনাট্য', নেতাজির ট্যাবলো বিতর্কে মমতাদের তোপ ‘সরকারি সূত্রের’
২০১৯ সালে দিল্লির রাজপথে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিআইবি)
২০১৯ সালে দিল্লির রাজপথে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিআইবি)

'প্রতি বছর একই চিত্রনাট্য', নেতাজির ট্যাবলো বিতর্কে মমতাদের তোপ ‘সরকারি সূত্রের’

  • ওই সূত্র বলেছেন যে ‘দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর অবক্ষয়ের ক্ষেত্রে বড়সড় প্রভাব পড়ে।’

সরকারিভাবে কেন্দ্রের তরফে কোনও মন্তব্য করা হল না। তবে প্রজাতন্ত্র দিবসে ট্যাবলো বিতর্কে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্টালিনদের বিরুদ্ধে কার্যত নাটকের অভিযোগ তুলল ‘সরকারি সূত্র’। ওই সূত্র বলেছেন যে নিজেদের কোনও 'ইতিবাচক কর্মসূচি' নেই। তাই প্রতি বছর বিভ্রান্তিকর তথ্য ব্যবহার করে আসছেন ওই মুখ্যমন্ত্রীরা।

সংবাদসংস্থা পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এক সরকারি আধিকারিক বলেছেন যে 'বিভ্রান্তিকর হিসেবে এগুলিকে আঞ্চলিক গর্বের সঙ্গে যোগ করে দেওয়া হয় এবং রাজ্যের মানুষের প্রতি কেন্দ্রের অপমান হিসেবে তুলে ধরা হয়। প্রায় প্রতি বছরই একই চিত্রনাট্য চলে। একটি বস্তুনিষ্ঠ প্রক্রিয়ার ফলাফলকে কেন্দ্র এবং রাজ্যের মধ্যে সংঘাতের বিষয় তুলে ধরার জন্য মুখ্যমন্ত্রীরা এই বিভ্রান্তিকর পথ অবলম্বন করেন। '

এবার দিল্লির রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবসের জন্য পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ুর ট্যাবলো নির্বাচিত না হওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে কেন্দ্রকে চিঠি লেখেন মমতা এবং স্টালিন। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে নিয়ে ট্যাবলোর প্রস্তাব খারিজ হয়ে যাওয়ায় পশ্চিমবঙ্গবাসী 'ব্যথিত' হবেন বলে জানান মমতা। ট্যাবলোর প্রস্তাব গৃহীত না হওয়ায় সরব হন কেরালার রাজনীতিবিদরা। বিশেষত নেতাজিকে নিয়ে ট্যাবলোর প্রস্তাব খারিজ হয়ে যাওয়ায় বিতর্ক শুরু হয়। সেই বিতর্কের মধ্যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে সরকারিভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া দেওয়া না হলেও মুখ খুলেছেন ‘সরকারি সূত্র’। পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই সূত্র বলেছেন যে ‘দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর অবক্ষয়ের ক্ষেত্রে বড়সড় প্রভাব পড়ে।’

ওই সূত্রের বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে পিটিআই জানিয়েছে, বিস্তারিত পর্যালোচনার পর কেরালা, তামিলনাড়ু এবং পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলোর প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। যেভাবে ট্যাবলো বেছে নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের আধিকারিকরাও। এবার মোট ৫৬ টি ট্যাবলোর প্রস্তাব জমা পড়েছিল। ২১ টি ট্যাবলোকে বেছে নেওয়া হয়েছে। সময়ের অভাবে যে কয়েকটি ট্যাবলোর প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে, তার থেকে বেশি ট্যাবলোর প্রস্তাব বাতিল হয়ে গিয়েছে। পিটিআইকে ওই সূত্র জানিয়েছেন, একই প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়েই নরেন্দ্র মোদী সরকারের আমলে ২০১৮ সাল এবং ২০২১ সালে কেরালার ট্যাবলোর প্রস্তাব গৃহীত হয়েছিল। ২০১৬ সাল, ২০১৭ সাল, ২০১৯ সাল এবং ২০২১ সালে গৃহীত হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলোর প্রস্তাব। একইভাবে ২০১৮ সাল ছাড়া ২০১৬ সাল থেকে প্রতি বছরই তামিলনাড়ুর ট্যাবলো নেমেছিল দিল্লির রাজপথে।

বন্ধ করুন