YES Bank-এর গ্রাহকদের আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই বলে আশ্বাস দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ছবি সৌজন্যে এএনআই।
YES Bank-এর গ্রাহকদের আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই বলে আশ্বাস দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ছবি সৌজন্যে এএনআই।

YES Bank সংকটে ১৪৫০ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স, আর্থিক সুরক্ষার আশ্বাস অর্থমন্ত্রীর

সংকটের সমাধানে একটি পথ খুঁজে পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামক। আরবিআই-ও আশ্বাস দিয়েছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমাধান মিলবে।

YES Bank সংকট ও তার জেরে আরবিআই-এর স্থগিতাদেশের জেরে শুক্রবার ১৪৫০-এর বেশি পয়েন্ট পতন ঘটল সেনসেক্সের। যদিও YES Bank-এর গ্রাহকদের আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই বলে আশ্বাস দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্কের পাশাপাশি YES Bank সংকটের জেরে শুক্রবার শেয়ারবাজার বন্ধ হওয়ার পরে বিকেল চারটেয় সেনসেক্স ৮৯৩.৯৯ পয়েন্ট অর্থাত্ ২.৩২% পতনের পরে দাঁড়ায় ৩৭৫৭৬.৬২ পয়েন্টে। নিফটি ৫০ ২৭৯.৫৫ পয়েন্ট অর্থাত্ ২.৪৮% নেমে দাঁড়ায় ১০৯৮৯.৪৫ পয়েন্টে। পাশাপাশি, এ দিন ইয়েস ব্যাঙ্কের শেয়ারদরে ৫৬.০৪% পতন ঘটেছে।

এ দিন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছেন, YES Bank গ্রাহকদের দুশ্চিন্তা করার দরকার নেই। তিনি বলেন, ‘আমরা পরিস্থিতির উপরে নজর রাখছি। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক একটি পরিকল্পনা করেছে, তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমাধান পাওয়া যাবে। YES Bank-এর গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে জানাচ্ছি, ভয় পাবেন না। আপনাদের অর্থ সুরক্ষিত রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা একটি পথ খুঁজে পেয়েছি, যা সকলের পক্ষে সুবিধাজনক। আরবিআই আশ্বাস দিয়েছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সংকটের সমাধান পাওয়া যাবে।’

স্থগিতাদেশ জারির কারণে YES Bank গ্রাহকদের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে মাসে ৫০,০০০ টাকার বেশি অর্থ তোলার উপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে আরবিআই। অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, প্রয়োজনে অতিরিক্ত অর্থ তুলতে গেলে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের শর্তাবলী অনুসরণ করতে হবে।

বৃহস্পতিবার YES Bank গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থেকে তোলা টাকার সীমা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক বেঁধে দেওয়ার পরে এ দিন সকালে অচল হয়ে যায় ব্যাঙ্কের অনলাইন লেনদেনের জন্য নির্দিষ্ট ওয়৩ এপ্রিল পর্যন্ত YES Bank গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থেকে মাসে ৫০,০০০ টাকার বেশি তোলা যাবে না বলে গতকাল নির্দেশিকা জারি করে আরবিআই।

এ দিন সকালে ব্যাঙ্কের ওয়েবসাইট খুলতে গেলে দেখা যায়, ‘হেভি ট্র্যাফিক’-এর কারণে তা সাময়িক ভাবে অচল হয়ে পড়েছে। তবে বোঝা যাচ্ছে না, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশ জারির জেরেই এই ব্যাঙ্কের নেট ব্যাঙ্কিং প্রক্রিয়া অচল হয়ে পড়েছে কি না।

ওয়েবসাইট খুললেই স্ক্রিনের উপরে বার্তা ভেসে উঠছে, ‘প্রিয় গ্রাহক, হেভি ট্র্যাফিক-এর কারণে আমাদের নেট ব্যাঙ্কিং প্রক্রিয়ায় বিঘ্ন ঘটেছে, যার জেরে আপনার অনুরোধ রক্ষা করা যাচ্ছে না। দয়া করে পরে চেষ্টা করুন অথবা লেনদেনের জন্য YES মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করুন।’

YES Bank গ্রাহকদের দাবি, বৃহস্পতিবার রাত থেকে ব্যাঙ্কের এটিএম কিয়স্কগুলিও কাজ করছে না। Yes Bank-এর এটিএম কিয়স্কে বার্তা ফুটে উঠছে, ‘প্রিয় গ্রাহক, আপনার ম্যাগস্ট্রাইপ এটিএম ডেবিট কার্ড আরবিআই-এর নির্দেশ অনুযায়ী আরও পড়ুন: আপনি কি YES Bank গ্রাহক? জেনে রাখুন জরুরি এই তথ্যগুলি

এ দিকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে, YES Bank-এর বর্তমান অর্থনৈতিক সংকট দূর করতে দ্রুত সমাধান খুঁজে বের করা হবে। আশা করা যাচ্ছে, এই ব্যাঙ্কের উপরে জারি করা গতকালের নির্দেশে উল্লিখিত সময় শেষ হওয়ার আগেই বর্তমান সংকটের সমাধান পাওয়া যাবে।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অনাদায়ী ঋণজাত সংকট মোকাবিলায় মূলধন বৃদ্ধিতে ব্যাঙ্কের ব্যর্থতার কারণেই অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে YES Bank। এ ছাড়া, ব্যাঙ্ক পরিচালনা ব্যবস্থাতেও ত্রুটি থাকায় সংকট গভীরতর রূপ ধারণ করেছে বলে জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। জানা গিয়েছে, আর্থিক সংকটের কারণে আস্থা হারিয়ে ব্যাঙ্কে ডিপোজিট করা টাকাও দ্রুত তুলে নিয়েছেন গ্রাহকরা।

আর্থিক সংকটের সমাধান খুঁজতে বরাবর YES Bank কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে শীর্ষ ব্যাঙ্ক। তবে বিজ্ঞপ্তিতে এ-ও জানানো হয়েছে যে, প্রাথমিক ভাবে আগ্রহ প্রকাশ করলেও সংকট ঘনালে বেশ কিছু বেসরকারি বিনিয়োগকারী পিছু হঠায় আরও ঘনীভূত হয়েছে ব্যাঙ্কের সমস্যা।হয়েছে।’বন্ধ করা



েবসাইট। আগামী

বন্ধ করুন