বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'হিন্দুদের সমস্ত রেশন খেত মুসলিমরা!', যোগীর 'সাম্প্রদায়িক' মন্তব্যে বিতর্কের
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (মিন্ট) (HT_PRINT)
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (মিন্ট) (HT_PRINT)

'হিন্দুদের সমস্ত রেশন খেত মুসলিমরা!', যোগীর 'সাম্প্রদায়িক' মন্তব্যে বিতর্কের

  • ওমর আবদুল্লাহ যোগীকে তোপ দেগে টুইটে লেখেন, ‘একজন মুখ্যমন্ত্রী  দাবি করেছেন যে মুসলমানরা হিন্দুদের সমস্ত রেশন খেয়েছে!’

এবার সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানোর অভিযোগ উঠল উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির হিন্দু্বের 'পোস্টার বয়' যোগী আদিত্যনাথ। রবিবার কুশিনগরে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে যোগী বলেছিলেন '২০১৭ সালের আগে শুধুমাত্র আব্বাজান ডাক দেওয়া মানুষরাই রেশন হজম করে যেত।' যোগীর এহেন মন্তব্যের বিরোধিতা করে সরব হয়েছেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লাহ।

যোগীর বক্তব্যের ক্লিপ রিটুইট করে ওমর আবদুল্লাহ ক্যাপশনে লেখেন, 'আমি সবসময়ই বলে আসছি যে, মুসলমানদের প্রতি বিদ্বেষ এবং ঘৃণ্য সাম্প্রদায়িকতা ছাড়া অন্য কোন ইস্যুতে নির্বাচন লড়ার কোনও ইচ্ছা বিজেপির নেই। এখানে একজন মুখ্যমন্ত্রী যিনি পুনর্নির্বাচনের জন্যে লড়তে চলেছেন, তিনি দাবি করেছেন যে মুসলমানরা হিন্দুদের সমস্ত রেশন খেয়েছে।'

উল্লেখ্য, যোগী রবিবার বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে দেশে তোষণের রাজনীতি নেই। তবে ২০১৭ সালের আগে সবাই কি রেশন পেত? শুধু যারা আব্বাজান ডাক দেয়, তারা সব রেশন হজম করে যেত।' মনে করা হচ্ছে 'আব্বাজান' উল্লেখ করে যোগী অখিলেশকে তোপ দাগেন। কারণ তিনি এই শব্দের প্রয়োগ করতেন। তবে এই মন্তব্যে যে সাম্প্রদায়িকতার ইঙ্গিত রয়েছে, তার বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন অনেকেই।

পাশাপাশি মোদীর প্রশংসা করে যোগী বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী মোদী দেশের রাজনৈতিক নীতি বদলে দিয়েছেন। ১৯৪৭ সালে জাতি, ধর্ম, অঞ্চল এবং ভাষা, পরিবার এবং রাজবংশের উপর ভিত্তি করে রাজনীতি শুরু হয়েছিল দেশে। তবে এখন প্রধানমন্ত্রী মোদী রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে গ্রাম, দরিদ্র, কৃষক, যুবক, মহিলা এবং শিশুদের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন বিকাশ।'

বন্ধ করুন