বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > লাগবে ১৫ মিনিট, খরচ ২৫০ টাকা - এবার বাড়িতে বসেই করতে পারবেন করোনা পরীক্ষা
এবার বাড়িতে বসেই করতে পারবেন করোনাভাইরাস পরীক্ষা। (ছবিটি প্রতীকী, ভূষণ কয়নারে/হিন্দুস্তান টাইমস)
এবার বাড়িতে বসেই করতে পারবেন করোনাভাইরাস পরীক্ষা। (ছবিটি প্রতীকী, ভূষণ কয়নারে/হিন্দুস্তান টাইমস)

লাগবে ১৫ মিনিট, খরচ ২৫০ টাকা - এবার বাড়িতে বসেই করতে পারবেন করোনা পরীক্ষা

  • কীভাবে ব্যবহার করবেন, জেনে নিন।

ঋতমা কৌল

এবার বাড়িতে বসেই করতে পারবেন করোনাভাইরাস পরীক্ষা। যে টেস্ট কিটের দাম পড়বে মাত্র ২৫০ টাকা। আর ১৫ মিনিটের মধ্যেই জানতে পারবেন রিপোর্ট। বুধবার সেই কিটে অনুমোদন দিল কেন্দ্র।

পুণের মাইল্যাব ডিসকভারি সলিউশনস লিমিটেড নামে একটি সংস্থা সেই টেস্ট কিট তৈরি করেছে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) তরফে জানানো হয়েছে, সেই টেস্ট কিটের মাধ্যমে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করা যাবে। যা শুধুমাত্র করোনার উপসর্গযুক্ত ব্যক্তি বা করোনায় আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা মানুষরা ব্যবহার করতে পারবেন। আইসিএমআরের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘যথেচ্ছ পরীক্ষা না করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যাঁদের রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, তাঁরা নিজেদের করোনায় আক্রান্ত বলে বিবেচনা করতে পারেন। পুনরায় টেস্ট করার প্রয়োজন নেই। যাঁদের রিপোর্ট পজিটিভ আসবে, তাঁদের আইসিএমআর এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নির্দেশিকা মেনে বাড়িতে নিভৃতবাসে থাকতে হবে।’

মাইল্যাব ডিসকভারি সলিউশনসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হাসমুখ রাওয়াল জানিয়েছেন, এক সপ্তাহের মধ্যে সেই কিট বাজারে চলে আসবে। তাঁর কথায়, ‘এই কিট পুরোপুরি তৈরি করতে আমাদের পাঁচ মাস লেগেছে। কর-সহ কিটপ্রতি দাম ২৫০ টাকা রাখা হয়েছে। এমন কিট তৈরি করা হয়েছে, যাতে সহজেই সেটি ব্যবহার করা যায় এবং তা জৈববর্জ্য নয়। ব্যবহারের পর ফেলে দেওয়ার জন্য একটি ডিসপোজাল ব্যাগও আছে।’ সঙ্গে বলেন, ‘পজিটিভ টেস্ট রিপোর্ট মিলতে পাঁচ থেকে সাত মিনিট লাগে। আর নেগেটিভ ফলাফলের ক্ষেত্রে বড়জোর ১৫ মিনিট লাগবে।’

কীভাবে ব্যবহার করবেন?

পাউচের সঙ্গে একটি টিউব, নাক থেকে সোয়াব সংগ্রহ করার স্টিক, একটি টেস্ট কার্ড এবং জৈববর্জ্য ব্যাগ থাকবে। যাঁরা সেই টেস্টকিট ব্যবহার করবেন, তাঁদের 'ম্যাইল্যাব কোভিসেলফ' নামে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। ম্যানুয়ালে জানানো হয়েছে, যতক্ষণ না বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন, ততক্ষণ দুটি নাসিকায় দুই থেকে চার সেন্টিমিটার পর্যন্ত সোয়াব সংগ্রহ করার স্টিক ঢোকাতে হবে। দুটি নাসিকায় পাঁচবার ঘোরাতে হবে সোয়াব স্টিকটি। তারপর তা টিউবের মধ্যে দিতে হবে এবং ভেঙে ফেলতে হবে বাকি সোয়াবটা। সেইসঙ্গে বন্ধ করে দিতে হবে টিউবের মুখ। টিউব চেপে ধরে টেস্ট কার্ডে পরপর দু'ফোঁটা ফেলতে হবে। ফলাফলের জন্য ১৫ মিনিটে অপেক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ২০ মিনিট পরও ফলাফল না হলে সেই পরীক্ষা বাতিল করে দেওযা হয়।

টেস্ট কার্ডে দুটি অংশ থাকে - কন্ট্রোল সেকশন এবং টেস্ট সেকশন। যদি শুধুমাত্র কন্ট্রোল সেকশন ‘সি’-তে কোনও বার দেখা যায়, তাহলে টেস্টের ফল নেগেটিভ হবে। আর যদি কন্ট্রোল সেকশন এবং টেস্ট সেকশনে বার দেখা যায়, তাহলে রিপোর্ট পজিটিভ হিসেবে বিবেচনা করা হবে বলে জানানো হয়েছে। ম্যানুয়ালে জানানো হয়েছে, মোবাইল ফোনের ক্যামেরার নিচে সেই কার্ড রাখতে হবে। তাহলে সেই রিপোর্ট পড়ে নেবে অ্যাপটি এবং সেইমতো রিপোর্ট আপলোড করবে।

বন্ধ করুন