বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Zomato Viral Post: রেস্তোরাঁয় ৫১২ টাকা, ডিসকাউন্ট দিয়েও Zomato-য় একই খাবারে পড়ল ৬৮৯! ভাইরাল পোস্ট
রাহুল মেহরার পোস্ট করা দুটি বিলের ছবি (বাঁদিকে), ডানদিকে জোম্যাটো (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে রয়টার্স)

Zomato Viral Post: রেস্তোরাঁয় ৫১২ টাকা, ডিসকাউন্ট দিয়েও Zomato-য় একই খাবারে পড়ল ৬৮৯! ভাইরাল পোস্ট

  • Zomato Viral Post: একটি রেস্তোরাঁয় মাশরুম মোমো, ভেজ ব্ল্যাক পিপার সস এবং ভেজিটেবিল ফ্রায়েড রাইস অর্ডার দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। মোট ৫১২ টাকা নিয়েছিল। জোম্যাটোয় অর্ডার দিতে খরচ পড়েছে ৬৮৯.৯ টাকা। তাও ডিসকাউন্টের পরে।

রেস্তোরাঁয় দাম নিয়েছে ৫১২ টাকা। সেই একই খাবার জোম্যাটোয় অর্ডার দিতে ৬৮৯ টাকা নেওয়া আছে। এমনই দাবি করলেন এক লিঙ্কডিন ব্যবহারকারী। দুটি বিলের ছবিও পোস্ট করেছেন তিনি। যে পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। 

রাহুল মেহরা নমে এক ব্যক্তি লিঙ্কডিন পোস্টে দাবি করেছেন, মুম্বইয়ের কান্দিভালি ইস্টের একটি রেস্তোরাঁয় মাশরুম মোমো, ভেজ ব্ল্যাক পিপার সস এবং ভেজিটেবিল ফ্রায়েড রাইস অর্ডার দিয়েছিলেন। গত ২ জুলাই রেস্তোরাঁয় মোট ৫১২ টাকা পড়েছিল। কেন্দ্রীয় জিএসটি এবং রাজ্য জিএসটি ধরেই সেই দাম নেওয়া হয়েছিল। মাশরুম মোমোর দাম নিয়েছিল ১১৯ টাকা। ভেজ ব্ল্যাক পিপার সসের দাম ১৯৯ টাকা নিয়েছিল। ১৭০ টাকা নিয়েছিল ভেজিটেবিল ফ্রায়েড রাইসের দাম।

আরও পড়ুন: প্রায় আধা দামে, ৪,৪৪৭ কোটি টাকায় দশ মিনিটে মুদি ডেলিভারি অ্যাপ Blinkit কিনছে Zomato

কিন্তু জোম্যাটোয় অর্ডার দিতে সেই দামটা লাফিয়ে বেড়ে যায়। রাহুলের পোস্ট করা বিলের ছবি (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) অনুযায়ী, ৭৫ টাকা ডিসকাউন্টের পরেও জোম্যাটোয় ওই একই খাবার (তিনটি পদ) দাম দাঁড়ায় ৬৮৯.৯ টাকা। ২৬৯ টাকা নিয়েছিল ভেজ ব্ল্যাক পিপার সস। ভেজিটেবিল ফ্রায়েড রাইসের জন্য খরচ পড়েছিল ২৪৫ টাকা। মাশরুম মোমো নিতে ১৭৯ টাকা খরচ পড়েছিল। অর্থাৎ জোম্যাটোয় অর্ডার দেওয়ায় ৩৪.৭৮ শতাংশ বেশি টাকা গুনতে হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি।

আরও পড়ুন: খাবারের মান কেমন? জানাতে হবে ফুড ডেলিভারি অ্যাপে, নির্দেশ কেন্দ্রের

ওই পোস্টের সঙ্গে রেস্তোরাঁ এবং জোম্যাটোয় অর্ডারের বিল পোস্ট করেন রাহুল। রেস্তোরাঁর বিলে ২ জুলাই উল্লেখ ছিল। জোম্যাটোর বিলে কোনও তারিখ ছিল না। কোনও বিলের সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা। রাহুলের দাবি, জোম্যাটোর লাভ এবং আমজনতার কথা ভেবে একটি সর্বোচ্চসীমা বেঁধে দেওয়া উচিত সরকারের। সেই পোস্টে একই দাবি করেছেন নেটিজেনদের একাংশ।  

বন্ধ করুন